খুলনা, বাংলাদেশ | ১২ বৈশাখ, ১৪৩১ | ২৫ এপ্রিল, ২০২৪

Breaking News

  রাঙামাটির সাজেকে শ্রমিকবাহী মিনি ট্রাক পাহাড়ের খাদে পড়ে ৯ জন নিহত

উপকূলের লবণাক্ত মাটি ও পানিতে বিনাসরিষা-৯ হাসি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা

বিনা উদ্ভাবিত প্রতিকূলতা সহনশীল ও উচ্চ ফলনশীল সরিষার জাত বিনাসরিষা -৯ এর সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এক মাঠ দিবস বুধবার ( ২৫ জানুয়ারি) বিকালে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার তুলসীডাঙ্গা গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) উপকেন্দ্র, সাতক্ষীরা আয়োজিত এই মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিনা ময়মনসিংহ এর মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম।

কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুলী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কলারোয়া পৌরসভার মেয়র মোঃ মনিরুজ্জামান, বিনা ময়মনসিংহের
উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. রেজা মোহাম্মদ ইমন, বিনা উপকেন্দ্র সাতক্ষীরার ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এবং ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ড.বাবুল আকতার, কলারোয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আবুল হোসেন মিয়া প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, উপকূলের লবণাক্ত মাটি ও পানিতে বিনাসরিষা-৯ জাতের সরিষার চাষ হাসি ফুটিয়েছে সাতক্ষীরার কৃষকদের মুখে। দুর্যোগ ও জলাবদ্ধতার প্রতিকূলতা রোধ করেও মাত্র ৮০ দিনে চাষীদের ঘরে উঠছে এই সরিষা। বিনাসরিষা-৯ জাতের সরিষার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি, পোকার আক্রমণ কম সাথে জলাবদ্ধতা ও লবণাক্ততা সহনশীল। এ বছর সাতক্ষীরায় প্রায় ২ হাজার বিঘা জমিতে চাষ হয়েছে এই উচ্চ ফলনশীল জাতটি। এই স্বল্পতম সময়ে চাষীরা আশাবাদী বিঘাপ্রতি ৭ থেকে ৮ মণ বিনাসরিষা-১ জাতের তেলবীজ পাবেন। বোরো ও আমন চাষের মাঝে যে সময়টুকু পাওয়া যায় সেটুকুই বিনাসরিষা-৯ চাষে ব্যবহার করছেন কৃষকরা। যার ফলে পতিত জমিসমূহ আবাদের আওতায় আসছে এছাড়াও দুই ফসলী জমি তিন ফসলী জমিত রূপান্তরিত হচ্ছে। সাতক্ষীরার মাঠে মাঠে এই জাতের সরিষার ফুল শোভা পাচ্ছে এখন। এছাড়াও বিনাসরিষা-৯ শূন্য চাষেও চাষ করা যায় যার ফলে কৃষকের সময় এবং অর্থ দুই ও সাশ্রয় হয়। এই জাতের সরিষা নাবীতেও চাস করলেও অনেক বেশি ফলন দেয়।

বক্তারা আরও বলেন, বর্তমানে যে বিপুল পরিমাণ তেল আমদানী করতে হয় সেখানে বিরাট সম্ভাবনা নিয়ে এসেছে বিনাসরিষা-৯ এর চাষ যার ফলে পতিত জমি সমূহ চাষের আওতায় এনে তেলের ঘাটতি অনেকাংশে পূরণ সম্ভব।

বিনা উপকেন্দ্র, সাতক্ষীরার মাধ্যমে এই অঞ্চলে কৃষকদের প্রশিক্ষণ, বীজ ও সার সহায়তার মাধ্যমে পতিত জমি সমূহতে এবং দেশী কম ফলনশীল সরিষার জাত প্রতিস্থাপন করে এই উন্নত উচ্চ ফলনশীল জাতটি চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।

কলারোয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় মাঠদিবস অনুষ্ঠানে উপজেলার ৮০ জন কৃষক কৃষাণী সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা গেজেট/ এসজেড




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!