খুলনা, বাংলাদেশ | ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ২৬ মে, ২০২৪

Breaking News

  ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিয়েছে ‘রেমাল’, মোংলা-পায়রা সমুদ্রবন্দরে ৭ এবং চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত
  উপকূলীয় এলাকায় লঞ্চ চলাচল বন্ধের নির্দেশ

Translation of three Sonnets of Dilwar

Original: Dilwar Khan, Translation: Gazi Abdulla-hel Baqui

(Dilwar Khan, a Bangladeshi poet, was born in Bharthokhola, South Surma, Sylhet District on 1 January 1937, known as Gono Manusher Kobi (poet of the mass people), he was awarded Bangla Academy Literary Award in 1980, later on received Bangla Academy Fellowship in 1981 and Ekushey Padak in 2008 by Bangladesh Government. Khan died on 10 October 2013. He wrote a large number of poems and songs. When asked what his philosophy of life was, he answers with the following lines of a poem:
“A rose plant ceaselessly tells,
Plant me whether in the garden or cemetery
I will bring into being the rose, the queen of all flowers.”)
Sheikh Mujibur Rahman
Dilwar

I am not your eulogizer. In kingfisher devotion
I did never jump in the tumult of your whirlpool of upsurge of power.
During day-dream I never utter incoherently,
Yet I have got in you the evidence of love and care.
So I have wanted the history of the nation.
So I have yearned for you in the solitary environment inside my bosom
Embracing the history of the nation: why does Aurobindo get thwarted?
Why does Netaji get thwarted? Or Rabindranath
For fulfilling what selfish end in the continent?

Where your all faults are, my enthusiasm in the long run
There the fake adulation made you an endless expanse of arid land
Own house having the excessive mourning is a dangerous abode,
The profound faith is disconnected,
Multiple middle classes, the tumult of the hungry river
Leaving alluvial soil makes corn-grains muddy.

The Flute of Eternity

By crossing so many dark paths having twists and turns
In assurance of speed, I am quite lively here today
In billions of souls’ harbour, bright and open,
Here the children’s words turning into cardamom-clove shed off.

What a pleasant smell! It seems that the dormant beastly killer in blood
Forgetting ferocity raises the love-soaked eyes
The musk-deer with their searching eyes finds out the forest’s greens,
I am not at the end of the journey, millions of up-coming ages
Inform me every moment by citing from the past:
You are a fossil of the flow of time, the outcome of anthropologists’
little intensive search.

Birds chirp in sweeter tone with the azure sky in view
It seems that very melody rings out in the smile of a new-born.
Blood is gradually surged; it generates waves in gushes,
No thwarting at all, rather tune is struck in fiddles.

Civilization with Fossils

I desired to go at Harappa and Mohenjo-Daro
To discern with the eyes the beauty of an ancient civilization,
Will perceive diving deep why there is a dark cave in its bosom?
Why is its language still speechless in the wave of light?

The formula of advancement lies in Copernicus of the past
The vision runs through the space in quest of infinity
Time struts along behind with a gentle laugh
Lover from love, comes and goes with partners

Harappa and Mohenjo-Daro demand far- reaching search
Why the Aryan and the non-Aryan emerged in human society
Why is there human blood in the delicate works of nature?
The thirsty language of civilization always wants sharp intellect.
The moving of the earth round the sun with the civilization of fossils
With olden non-Aryan knowledge, the Aryan intellect repays its debt.

* মাত্র ৫ বছর বয়সে তিনি বাবাকে হারান। ১৬ বছর বয়সে স্কুল থেকে ঝড়ে পড়েন। ১৭ বছরের মাথায় মোট ৪ বার চাকরী হারিয়েছিলেন। ১৮ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। ১৯ বছর বয়সে তিনি বাবা হন। ২০ বছর বয়সে তার স্ত্রী তাঁকে ফেলে রেখে চলে যায় আর কন্যা সন্তানটিকেও নিয়ে যায় সাথে।

সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন এবং সেখানে ব্যর্থ হন। ইনস্যুরেন্স কোম্পানীতে যোগদান করেন এবং সেখানেও সফলতার দেখা পান নি। নিজের মেয়েকে নিজেই অপহরণ করতে গিয়েছিলেন এবং সেখানেও ব্যর্থ হন। চাকরী নিয়েছিলেন রেললাইনের কন্ডাকটর হিসেবে, সুবিধে করতে পারেন নি।

অবশেষে এক ক্যাফেতে রাধুনীর চাকুরী নেন। ৬৫ বছর বয়সে তিনি অবসরে গিয়েছিলেন। অবসরে যাবার প্রথম দিন সরকারের কাছ থেকে ১০৫ ডলারের চেক পেয়েছিলেন। তাঁর কাছে মনে হয়েছিল জীবন তাঁর মূল্যহীন।

আত্মহত্যা করবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। এরপর একটি গাছের নিচে বসে জীবনে কি কি অর্জন করেছেন তাঁর একটা লিস্ট বানাতে শুরু করলেন।

তখন তাঁর কাছে মনে হল জীবনে এখনো অনেক কিছু করবার বাকি আছে। আর তিনি বাকি সবার চাইতে একটি জিনিসের ব্যাপারে বেশি জানেন- তা হল রন্ধনশিল্প।
তিনি ৮৭ ডলার ধার কই না হয়ে সঠিক পরিকল্পনা করে সমানের দিকে এগিয়ে যান। দেরিতে হলেও, অবশ্যই আপনি সফলকাম হবেন।

তিনি ৮৭ ডলার ধার করলেন সেই চেকের বিপরীতে আর কিছু মুরগী কিনে এনে নিজের রেসিপি দিয়ে সেগুলো ফ্রাই করলেন।

এরপর Kentucky তে প্রতিবেশীদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে সেই ফ্রাইড চিকেন বিক্রি করা শুরু করলেন!
জন্ম নিল KENTUCY FRIED CHICKEN তথা KFC র…
৬৫ বছর বয়সে তিনি দুনিয়া ছাড়তে চেয়েছিলেন আর ৮৮ বছর বয়সে এসে Colonel Sanders বিলিয়নার বনে গিয়েছিলেন।
স্মরণীয় হয়ে আছেন KFC এর প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে!

—– তাই, হতাশ হবার কিছু নেই। আপনার হাতে এখনো অনেক সময় আছে বিলিয়নার হবার…শুধু চেষ্টাটি প্রয়োজন! হতাশ না হয়ে সঠিক পরিকল্পনা করে সমানের দিকে এগিয়ে যান। দেরিতে হলেও, অবশ্যই আপনি সফলকাম হবেন।
কাম হবেন।

খুলনা গেজেট/এমএম




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!