খুলনা, বাংলাদেশ | ১০ বৈশাখ, ১৪৩১ | ২৩ এপ্রিল, ২০২৪

Breaking News

১৬ জানুয়ারি সারা দেশে বিএনপির সমাবেশ-মিছিল

গেজেট ডেস্ক

আওয়ামী লীগ সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বিলুপ্তকরণ ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবি আদায়ে আগামী ১৬ জানুয়ারি সারা দেশে সমাবেশ ও মিছিল করবে বিএনপি। বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে গণঅবস্থান কর্মসূচি থেকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নতুন এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

ডিসেম্বর বিএনপির নেতৃত্বে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোট সরকার পতনের দাবিতে যুগপৎ আন্দোলন শুরু করে। আজ যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় কর্মসূচি হিসেবে গণ-অবস্থান অনুষ্ঠিত হয়।

ফখরুল বলেন, ১০ দফা আদায় ও বিদ্যুতের মূল্য কমানোর দাবিতে ১৬ জানুয়ারি সারা দেশে কেন্দ্রসহ সব মহানগর, জেলা-উপজেলা ও পৌর শহরে সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, আজকে সরকারের লক্ষ্য একটাই; তারা অন্যায়ভাবে, বেআইনিভাবে জনগণের সব অধিকার হরণ করে দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

সুসংবাদ হলো বাংলাদেশের বিশিষ্ট নাগরিক, সুশীল সমাজ এগিয়ে আসতে শুরু করেছেন, বলেন তিনি।

ফখরুল বলেন, ১০ ডিসেম্বর আমাদের কর্মসূচি ছিল। সরকারের ষড়যন্ত্র ছিল, আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করার পরও বাংলাদেশের মানুষ ১০ ডিসেম্বরের কর্মসূচি সফল করেছেন। লাখ লাখ মানুষ গণমিছিল কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিল।

আসুন আমরা জেগে উঠি। ১৯৭১ সালের যে স্বাধীনতার স্বপ্ন আমরা দেখেছিলাম, সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার জন্য আসুন আমরা নতুন বাংলাদেশ, জনগণের বাংলাদেশ, কল্যাণমূলক বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য আমরা জেগে উঠি, বলেন ফখরুল।

বিএনপির গণঅবস্থান কর্মসূচিকে ঘিরে নেতাকর্মীদের ঢলে লোকারণ্য ছিল নয়াপল্টন ও আশেপাশের এলাকা। বুধবার সকাল থেকেই বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা নয়াপল্টন সড়কে অবস্থান নেন। বিভিন্ন ব্যানারে মিছিল নিয়ে এসে তারা দলীয় কার্যালয়ের সামনে ও আশেপাশের সড়কে জড়ো হন। বেলা বাড়ার সঙ্গে নেতাকর্মীদের ঢল বাড়ে। এতে ফকিরাপুল মোড় থেকে নাইন্টিংগেল মোড় পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ হ‌য়ে যায়। আশেপাশের সড়কেও তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

পল্টন এলাকায় দেখা যায়, বিএনপির গণঅবস্থান ঘিরে বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতাকর্মীরা স্লোগান দিয়ে গণঅবস্থান কর্মসূচিতে এসে যোগ দেন। দুপুর ১২টার দিকে সড়কের দুই পাশে অবস্থান নেয় বিএনপি নেতাকর্মীরা। এতে রাজধানীর ব্যস্ততম ভিআইপি সড়কের ফকিরাপুল মোড় থেকে কাকরাইল নাইটিংগেল মোড় পর্যন্ত নেতাকর্মীদের ভিড়ে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এই এলাকায় সকল সড়ক ও অলি গলিতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তারপরও সড়কের উত্তর পাশদিয়ে দু-একটি গাড়ি আসলেও পার হতে অনেক সময় লাগছে। এছাড়া ফকিরাপুল, দৈনিক বাংলা, আরামবাগ এলাকাতেও যানবাহনের যানজট সৃষ্টি হয়।

খুলনা গেজেট/ এসজেড




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!