খুলনা, বাংলাদেশ | ১৭ আষাঢ়, ১৪২৯ | ১ জুলাই, ২০২২

Breaking News

  গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৩৮০ জন ও আক্রান্ত হয়েছেন ৭ লাখ ১৯ হাজার ৪৮০ জন

সাতক্ষীরায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর প্রতিকার চেয়ে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরায় ভবন নির্মাণে পৌর আইন লঙ্ঘনের প্রতিবাদ করায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিকার চেয়ে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগি গ্রামবাসি। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে পৌরসভার রাজার বাগান পূর্বপাড়া গ্রামবাসির উদ্যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে স্থানীয় বাসিন্দা শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও ২নং ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি শহিদুলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা ভূমিহীন সমিতির সভাপতি আব্দুল কওসার, সহ-সভাপতি মফিজুর রহমান, অর্থ সম্পাদক আব্দুল আলিম, সদস্য আব্দুল গফ্ফার প্রমূখ।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, পৌর আইন লঙ্ঘন করে রাজার বাগান পূর্বপাড়ার নতুন বাসিন্দা ইমাদুল সরদার বাড়ি নির্মাণ করছেন। এসময় তারা প্রতিবেশীর জমির উপরে ছাদের কার্নিস বাড়িয়ে কাজ শুরু করে। এতে বাধা দিলে ইমাদুল সরদার প্রতিবেশীদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। বিষয়টি স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে জানালে তিনি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ইমাদুল সরদারকে পৌর আইন মেনে ও প্রতিবেশীদের ক্ষতি না করে ভবন নির্মাণের নির্দেশনা দেন। কিন্তু পৌর কাউন্সিলরের নির্দেশনা না মেনে তিনি একইভাবে ভবনের কাজ করতে থাকেন। বিষয়টি নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে একদিন হাতাহাতি হয়। এঘটনায় ৯৯৯-এ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং পুরাতন সাতক্ষীরা পুলিশ ফাঁড়িতে নির্ধারিত দিনে উভয়পক্ষকে হাজির হওয়ার নোটিশ দেয়া হয়। কিন্তু ইমাদুল সরদার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্ধারিত দিনে হাজির হননি। পরে লিখিত অভিযোগ পেয়ে সদর থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে শালিসে ডাকা হলেও ইমাদুল সরদাররা শালিসে হাজির হয়নি। অবাক করার বিষয় হচ্ছে, তারা পুলিশের আহবানে সাড়া না দিলেও তাদের পক্ষ নিয়ে পুলিশ যখন তখন ঘটনাস্থলে যাচ্ছে এবং ইমাদুল সরদারের অর্থে প্রভাবিত হয়ে তার প্রতিবেশীদের অহেতুক হয়রানি করছে।

রাজারবাগান পূর্বপাড়ার শফিকুল ইসলাম বলেন, পৌর আইন লঙ্ঘন ও আমাদের জমির উপরে ছাদের কার্নিস বাড়িয়ে দেওয়ার বিষয়ে বাধা দেওয়ায় ইমাদুল সরদার অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানির হুমকি দিয়ে আসছিল। আমরা উপায়ান্তর না পেয়ে সাতক্ষীরা পৌরসভায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ তাদের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে বলে। কিন্তু সে নির্দেশনাও না মেনে কাজ অব্যাহত রাখে। স্থানীয় এলাকাবাসী এবিষয়ে প্রতিবাদ করলে ইমাদুল সরদার একটি মিথ্যে নাটক সাজিয়ে সদর থানায় আমার পিতা এবং আমাকেসহ ৫ জন অসহায় ব্যক্তির বিরুদ্ধে একটি মিথ্যে মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলায় পুলিশ আমাকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করে। আমি সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়ি আসলে ইমাদুল আবারো মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানিসহ বিভিন্ন হুমকি প্রদর্শন করে যাচ্ছে। এমনকি বার বার আমারসহ গ্রামবাসীর বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। আমরা এখনো অবাক হচ্ছি এই কারণে যে, পুলিশের আহবানে থানায় বসাবসির দিন হাজির না হলেও পুলিশ অজ্ঞাত কারণে তাদের আহবানে সাড়া দিয়ে এলাকায় এসে বার বার শাসিয়ে যাচ্ছে।

মানববন্ধন থেকে ইমাদুল কর্তৃক দায়ের করা মিথ্যে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি প্রদান পূর্বক ইমাদুলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। একই সাথে পুলিশ কেন বার বার তাদের পক্ষ নিয়ে গ্রামবাসিকে হয়রানি করছে, তা অনুসন্ধানের জন্য পুলিশ সুপারের কাছে বিনীত অনুরোধ জানানো হয়। পরে একই দাবিতে দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করেন গ্রামবাসি।

খুলনা গেজেট/ টি আই




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692