খুলনা, বাংলাদেশ | ১০ আষাঢ়, ১৪৩১ | ২৪ জুন, ২০২৪

Breaking News

  পাবনা সদর উপজেলার নতুন গোয়াইলবাড়ি এলাকায় পদ্মা নদীতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু
  ব্লগার নাজিমুদ্দিন হত্যা : মেজর জিয়াসহ ৪ আসামির বিচার শুরু, ৫ জনকে অব্যাহতি

ভারতীয় গরুসহ নৌকা আটক : ধরা পড়ায় সহকর্মীকে কোপালো চোরাকারবারী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলাধীন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী সুন্দরবন সংলগ্ন কচুখালী খাল থেকে ২৬টি ভারতীয় গরু আটক করেছে রিভারাইন বিজিবি সদস্যরা। কাছিকাটা রিভারাইন বিজিবির সহযোগীতায় কৈখালী রিভারাইন বিজিবির সদস্যরা বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) ভোর রাত ১টার দিকে এসব গরু আটক করে।

এসময় গরু বহনের কাজে ব্যবহৃত একটি বিশালাকারের নৌকা জব্দ করা হয়। এদিকে গরু আটকের ঘটনায় সহযোগীদের হামলায় দেলোয়ার হোসেন নামের এক চোরাকারবারী আহত হয়েছে। তিনি শ্যামনগর উপজেলার পূর্ব কৈখালী গ্রামের মুনসুর আলীর ছেলে।

কৈখালী ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদসহ স্থানীয় একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, রিভারাইন বিজিবির কৈখালী ক্যাম্পের সদস্যরা বৃহস্পতিবার ভোর রাত ১টার দিকে সুন্দরবন সংলগ্ন সীমান্তবর্তী নদীতে অভিযান চালায়। এসময় সুন্দরবনের কাছিকাটা রিভারাইন বিজিবির সহযোগীতায় ভারতের রায়মঙ্গল নদী সংলগ্ন বাংলাদেশ অংশের কচুখালী খাল থেকে একটি নৌকা জব্দ করে বিজিবি সদস্যরা। এসময় গরু পারাপারের সাথে জড়িতরা বনের মধ্যে পালিয়ে গেলে জব্দকৃত নৌকা হতে ২৬টি ভারতীয় গরু উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে আটককৃত ২৬টি গরুর মধ্যে ২২টি বসন্তপুর কাস্টমস কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। দুপুরের পরও আটককৃত গরুর অবশিষ্ট ৪টি গরু কৈখালী বিজিবি ক্যাম্পে বেঁধে রাখতে দেখেছেন তারা।

এদিকে গরু আটকের পর বৃহস্পতিবার ভোর রাতে দেলোয়ার নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে একদল দুর্বৃত্ত। তার ভুলে বিশাল গরুর চালান হাতছাড়া হওয়ার অভিযোগ কৈখালী কয়ালপাড়ার মামুন, বাবলু ও আজিজুলের নেতৃ্ত্বে ওই হামলা চালানো হয় বলে দাবি দেলোয়ারের।

হামলার সাথে জড়িতরা গরু চোরাচালানের সাথে জড়িত উল্লেখ করে দেলোয়ার জানায়, আগে ওই চক্রের সাথে জড়িত থাকলেও এখন অপরাধ জগৎ থেকে সরে এসেছেন তিনি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুর রহিম ২৬টি গরু আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গরু আটকের ঘটনায় দেলোয়ার নামের একজনকে তার সহযোগীরা কুপিয়েছে। কয়েকটি গরু রেখে বাকি ২২টি গরু বসন্তপুর কাস্টমস অফিসে জমা দেয়ার কথা তিনি জেনেছেন।

এসব বিষয়ে জানার জন্য বার বার যোগাযোগ করা হলেও কৈখালী ও নীলডুমুরস্থ রিভারাইন বিজিবির দায়িত্বশীলদের কেউই ফোন রিসিভ করেননি।

 

খুলনা গেজেট/এনএম




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!