খুলনা, বাংলাদেশ | ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ | ২৭ নভেম্বর, ২০২১

Breaking News

  করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া দেশগুলোর সঙ্গে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।
  রাজধানীর ওয়ারী থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার হওয়া নবজাতক ঢাকা মেডিকেলে মারা গেছে
  ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫ লাখ ৬১ হাজার ৭১৯ এবং এ রোগে মৃতের সংখ্যা ছিল ৬ হাজার ২২৮ জন

পদবির সাথে ‘অশ্লীল‘ শব্দের মিল : চাকরি পেতে বিড়ম্বনায় তরুণী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অনেক সময় নাম এবং অদ্ভুত পদবির কারণে নানা উপহাসের মুখে পড়তে হয়। অনেকেই এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন। তা সে স্কুল, কলেজ, বন্ধু-বান্ধব হোক বা কর্মপ্রতিষ্ঠান। কিন্তু অদ্ভুত পদবির কারণে চাকরি পেতে সমস্যা হয়েছে, এমন ঘটনা খুব কমই শোনা গিয়েছে। তবে সম্প্রতি তেমন ভয়ানক অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন এক মহিলা। শুধুমাত্র পদবির সঙ্গে একটি ‘অশ্লীল’ শব্দের মিল থাকায় চাকরির আবেদনপত্রই গ্রহণ করা হয়নি বলে দাবি।

অসমের গুয়াহাটির বাসিন্দা ওই মহিলার নাম প্রিয়ঙ্কা। আদিবাসী সম্প্রদায়ের। প্রিয়ঙ্কা যে সম্প্রদায়ের সেখানে দু’ধরনের পদবির চল রয়েছে। তারই একটি ‘তিয়া’। প্রিয়ঙ্কার দাবি, যখনই কোনও চাকরির ফর্ম পূরণ করেছেন তাঁর ‘তিয়া’ পদবির জন্য অনলাইন সফটওয়্যার সেটাকে অশ্লীল শব্দ হিসেবে চিহ্নিত করে তা বাতিল করেছে। ফলে আবেদন করেও তাঁর নাম বাতিল হয়েছে শুধুমাত্র অশ্লীল শব্দের সঙ্গে পদবির মিল থাকার জন্য! অনেক বেসরকারি সংস্থাও তাঁর এই পদবির জন্য আবেদনপত্র বাতিল করেছে বলেও দাবি প্রিয়ঙ্কার।

কিন্তু শেষমেশ তাঁর এই পদবির ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য নেটমাধ্যমকে বেছে নেন প্রিয়ঙ্কা। একই সঙ্গে তাঁর সমস্যা সম্পর্কেও জানান।

প্রিয়ঙ্কা জানান, যখনই কোনও চাকরির ইন্টারভিউ দিতে যেতেন, তাঁর পদবি শুনে সকলে উপহাস করতেন। তাঁর কথায়, “লোকজনকে বোঝাতে বোঝাতে ক্লান্ত হয়ে গিয়েছি যে, আমার পদবি কোনও অশ্লীল শব্দ নয়। নিছকই পদবি। আমাদের সম্প্রদায়ে এই পদবিই অধিকাংশ মানুষের।”

বার বার আবেদনপত্র বাতিল হয়ে যাওয়ার পর শেষমেশ এক সংস্থায় তাকে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা। কিন্তু তার পদবির জন্য যে হয়রানি এবং উপহাসের শিকার হতে হচ্ছে তা নিয়ে শঙ্কিত, এমনই জানিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা।

 

খুলনা গেজেট/এনএম




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692