খুলনা, বাংলাদেশ | ৫ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৯ জুন, ২০২৪

Breaking News

  কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধসে নিহত ১১

ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে আদালতে যা বললেন শাকিব খান

বিনোদন ডেস্ক

ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগ তোলা অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাঙালি প্রযোজক রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও হত্যার হুমকির অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান। আদালতে জবানবন্দিতে অভিনেতা দাবি করেন, ধর্ষণের অভিযোগ তুলে তার কাছে ডলার নেন রহমত উল্লাহ।

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাতুল রাকিবের আদালতে মামলা করেন শাকিব। এরপর জবানবন্দিতে তিনি বলেন, রহমত উল্লাহ এ সিনেমার কেউ নয়। সিনেমার প্রযোজক জানে আলম। রহমত উল্লাহ একজন ঠগ, প্রতারক ও চাঁদাবাজ।

চিত্রনায়ক বলেন, রহমত উল্লাহ আমার সঙ্গে এমন আচরণ করে পার পেলে ভবিষ্যতে অনেকে তার কাছে ভুক্তভোগী হবেন। অস্ট্রেলিয়ায় ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ সিনেমার শুটিংয়ে শিডিউল ফাঁসানো এবং সহ-নারী প্রযোজককে ধর্ষণের মতো অভিযোগ তুলে আমার থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার ডলার নিয়েছেন তিনি।

অভিনেতা আরও বলেন, ২০১৬ সালে ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ সিনেমার শুটিংয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়ায় যাই। সেখানে শিডিউল ফাঁসানো এবং সহ-নারী প্রযোজককে ধর্ষণের মতো অভিযোগ তুলেন রহমত উল্লাহ। অস্ট্রেলিয়ার পুলিশের কাছে এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ নেই। অস্ট্রেলিয়ায় যে অভিনেত্রীর সঙ্গে অভিনয়ের কথা, তিনিও কোনো অভিযোগ দেননি।

এ অভিনেতা বলেন, সিনেমার ব্যাপারে আমার চুক্তি হয় জানে আলমের সঙ্গে। রহমত উল্লাহ কোনো প্রযোজকই নন। তিনি আমার কাছে আরও এক লাখ ডলার দাবি করেছেন। চাঁদার টাকা পাওয়ার জন্য আমার ক্যারিয়ার নিয়ে রহমত উল্লাহ হুমকিও দিয়েছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আরফাতুল রাকিবের আদালতে মামলা করেন শাকিব। এ সময় আদালত জবানবন্দি নেয় অভিনেতার। একই সময় রহমত উল্লাহকে আগামী ২৬ এপ্রিল আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন আদালত।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ মার্চ বিকেলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক, পরিচালক, শিল্পী সমিতি ও ক্যামেরাম্যান সমিতি বরাবর শাকিব খানের বিরুদ্ধে মিথ্যা আশ্বাস, অসদাচরণ ও ধর্ষণের মতো গুরুতর বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানান ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ সিনেমার প্রযোজক রহমত উল্লাহ।

নির্মিতব্য ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ (২০১৭) সিনেমায় অসদাচরণ, মিথ্যা আশ্বাস, ধর্ষণ (NSW Police reference no: E 62494959) এবং পেশাগত অবহেলার মাধ্যমে চলচ্চিত্রটির ক্ষতি সাধন, চলচ্চিত্রের শুটিং সম্পন্ন করতে অথবা লগ্নিকৃত অর্থ ফিরিয়ে দিতে রাজি না হওয়ায় নিরুপায় হয়ে অভিযোগ করেছেন বলে অভিযোগেপত্রে উল্লেখ করেছেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী এ বাঙালি প্রযোজক।

এর ক’দিন পর শাকিব রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা করতে যান রহমত উল্লাহর বিরুদ্ধে। সেখানে মামলা না নেয়ায় ফিরে আসেন তিনি। এরপর ডিবি কার্যালয়ে যান। সেখান থেকে বের হয়ে বলেন, রহমত উল্লাহ বাটপার-প্রতারক। তিনি শুধু আমার সঙ্গেই প্রতারণা করেননি। এদেশের মানুষের সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন। আমাকে দেশের লাখো মানুষ ভালোবাসে, তাদের সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন বলে জানান শাকিব।

খুলনা গেজেট/ এসজেড




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!