খুলনা, বাংলাদেশ | ৬ কার্তিক, ১৪২৮ | ২২ অক্টোবর, ২০২১

Breaking News

  টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ ও স্কটল্যান্ড
  ডেঙ্গুতে আরও ১৭০ জন হাসপাতালে ভর্তি, মৃত্যু ১
  অপপ্রচারের অভিযোগে বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক রুমা সরকার দুই দিনের রিমান্ডে
  ফেনীতে ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

দুই বছর পর ভারত থেকে ফিরল ৭ বাংলাদেশি তরুনী

শার্শা প্রতিনিধি

ভারতে পাচারের শিকার ৭ বাংলাদেশি তরুনীকে দুই বছর পর বেনাপোল দিয়ে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকালে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে ।

ফেরত আসা তরুনীরা হলেন, যশোরের শিরিনা বিশ্বাস,কুড়ি গ্রামের আঞ্জুমান সুমি,ফরিদপুরের মৌসুমি আক্তার, চট্রগ্রামের রিয়া আক্তার,শ্রীপুরের সোহাগী আক্তার মিম,খাগড়াছড়ির জাকিয়া আক্তার ও সুনামগঞ্জের সুমা আক্তার। এসব তরুনীদের বয়স ২৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। গত দুই বছর আগে এরা ভারতে পাচার হয়।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আহসান হাবিব জানান, ইমিগ্রেশনের কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আইনী সহয়তা দিতে এসব তরুনীদের জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থ্যা গ্রহন করেছে।

পাচারের শিকার তরুনীরা জানান, ভাল কাজ দেওয়ার নাম করে তাদেরকে সীমান্ত পথে ভারতে নেয় দালালরা। পরে পাচারকারীদের খপ্পর থেকে মুক্তি পেয়ে বাড়ি ফিরছে তারা।

তরুনীদেরকে গ্রহনকারী এনজিও সংস্থ্যা জাস্টিস এন্ড কেয়ারের সিনিয়ার প্রোগ্রামার অফিসার এবিএম মুহিত হোসেন জানান, ভাল কাজের প্রলোভনে দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে এসব তরুনীরা দুই বছর আগে ভারতে যায়। এসময় পাচারকারীরা তাদের ভাল কাজ না দিয়ে ঝুকি পূর্ণ কাজে ব্যবহার করে। খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ভারতীয় একটি এনজিও সংস্থ্যা তাদেরকে ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে। পরে রাষ্ট্রীয় প্রক্রিয়ায় ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তাদের দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

এসময় তিনি আরও জানান, বর্তমান কোভিড পরিস্থিতির কারনে নিরাপত্তার কথা ভেবে তরুনীদের যশোর গাজীর দরগায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ১৪ দিন রাখা হবে। কোয়ারেন্টাইন শেষে তাদেরকে আইনী সহয়তাসহ কর্মসংস্থানের বিষয়ে সহযোগীতা করা হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

খুলনা গেজেট/কেএম




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692