খুলনা, বাংলাদেশ | ১০ বৈশাখ, ১৪৩১ | ২৩ এপ্রিল, ২০২৪

Breaking News

  বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) দুই শিক্ষার্থী নিহত
  খুলনায় ৪০.৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা, যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় ৪০.৬
  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

কিস্তির টাকা না পেয়ে বৃদ্ধকে পেটালেন ব্র্যাক কর্মী, ক্ষোভে-দু:খে আত্মহত্যার চেষ্টা

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি

নড়াইলের লোহাগড়ায় কিস্তির টাকা না পেয়ে মো: রবিউল ইসলাম মোল্যা (৭৫) নামের অশীতিপর বৃদ্ধকে পিটিয়েছেন এক ব্র্যাক কর্মী। এ ঘটনার পর ওই বৃদ্ধ ক্ষোভে-দুঃখে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃদ্ধ’র স্ত্রী লোহাগড়া থানায় একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার (৩১ মার্চ) দুপুরের দিকে ব্র্যাক লোহাগড়া ব্রাঞ্চের ম্যানেজার জামিরুল রহমানের নির্দেশে মাঠ কর্মী মোঃ সেলিম হোসেন পার-মল্লিকপুর গ্রামের মোঃ রবিউল ইসলাম মোল্যাকে লোহাগড়া পৌর শহরের মশাঘুনী এলাকায় অবস্থিত ব্রাক অফিসে কিস্তির টাকার জন্য ফোন করে ডেকে নিয়ে আসেন। এরপর মাঠ কর্মী সেলিম ঋণ গ্রহীতা রবিউল ব্র্যাক অফিসে আসলে তার নিকট কিস্তির টাকার জন্য মানসিকভাবে চাপ দিয়ে নানা কুরুচিপূর্ণ কথা বলতে থাকেন। একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটা-কাটি হলে সেলিম অশীতিপর বৃদ্ধ রবিউল ইসলামের চোখে মুখে কিল,ঘুসি, চড়-ধাপ্পড় মেরে বলেন, ‘টাকা দিতে না পারলে বিষ কিনে খাও, মরে গেলে আর কিস্তির টাকা দেওয়া লাগবে না’। অবস্থা বেগতিক দেখে রবিউল কিস্তির টাকা পরিশোধের কথা দিয়ে ব্র্যাক অফিস থেকে নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন।

অপমান সহ্য করতে না পেরে ক্ষোভে-দু:খে ঋণগ্রহিতা রবিউল আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন। তার বাড়িতে থাকা কীটনাশক পান করেন। পরিবারের সদস্যরা হঠাৎ রবিউলের অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে তাকে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদিকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার বিকালে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে সোমবার রাতে ম্যানেজার জামিনুর রহমান ও মাঠ কর্মী সেলিমের নামে থানায় একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন।

কান্না,জড়িত কন্ঠে রাবেয়া বেগম বলেন, ‘ ব্র্যাক থেকে লোন নিয়েছি। ১টা কিস্তি দিয়েছি। ২টা কিস্তির জন্য ২দিন সময় চেয়েছি। তারপর যদি টাকা না দিতে পারি, তার জন্য দেশে প্রচলিত আইন আছে, সেই আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নিবেন। ব্রাককর্মী সেলিম তো ৭৫ বছর বয়সী একজন মানুষের গায়ে হাত দিতে পারেন না। আমি এ ঘটনার বিচার চাই ‘।

এ ঘটনার পর সোমবার সকালে গণমাধ্যম কর্মীরা ব্র্যাক অফিসে গিয়ে খোঁজ করেও ম্যানেজার জামিরুল রহমান ও মাঠ কর্মী সেলিমকে পাওয়া যায় নাই। মোবাইল ফোনে ফোন দিলেও তারা ফোন রিসিভ করে নাই।

নড়াইল জেলা ব্রাকের সমন্বয়কারী মোঃ জাহিদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‘ এমন আচরণ করা অপরাধ, এটা ঠিক না। তবে তদন্তকরে ঘটনার সত্যতা পেলে সেলিমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কাঞ্চন রায় মঙ্গলবার দুপুরে অভিযোগ প্রাপ্তির কথা জানিয়ে বলেন, ‘তদন্ত করে আইনত ব্যবস্হা নেওয়া হবে।

খুলনা গেজেট/কেডি




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!