খুলনা, বাংলাদেশ | ২০ ফাল্গুন, ১৪৩০ | ৪ মার্চ, ২০২৪

Breaking News

  ঢাকায় অর্ধশত রেস্তোরাঁয় পুলিশের অভিযান, আটক ৪০

৭২ ঘণ্টায় ইসরাইলি বাহিনীর ৭৯টি গাড়ি ধ্বংস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস দাবি করেছে, তাদের যোদ্ধারা গত ৭২ ঘণ্টায় ইসরাইলি সেনাবাহিনীর অন্তত ৭৯টি গাড়ি সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে ধ্বংস করেছে। বৃহস্পতিবার সংগঠনটির সশস্ত্র শাখা আল-কাসসাম টেলিগ্রামে জানিয়েছে, হামাস যোদ্ধারা গাজা শহরের শেখ রাদওয়ান বসতির একটি টানেলের মুখে একটি বুবি ফাঁদ তৈরি করে এবং ইসরাইলি সৈন্যরা এটির দিকে অগ্রসর হওয়া মাত্রই তা উড়িয়ে দেয়া হয়।

আল-কাসসাম দাবি করেছে, তাদের এ ফাঁদে পা দিয়ে বেশ কয়েকজন ইসরাইলি সৈন্য নিহত ও আহতও হয়েছে। অবরুদ্ধ গাজায় গত ৭ অক্টোবর থেকে ইসরাইলের অব্যাহত হামলায় ফিলিস্তিনি নিহতের সংখ্যা ১৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নিহতের সংখ্যা ১৭ হাজার ১৭৭ এবং আহতের সংখ্যা ৪৬ হাজারেরও বেশি।

মন্ত্রণালয়টি জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায়ই ৩৫০ জন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কুদরা এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, দক্ষিণ গাজার হাসপাতালগুলোতে রোগীদের আর স্থান হচ্ছে না। তিনি বলেন, খাবার ও ওষুধের অভাবে আশ্রয় গ্রহণকারীদের স্বাস্থ্যগত অবস্থা খুবই করুণ। অস্থায়ী আশ্রয়শিবিরের বাসিন্দারা অনাহারে দিন পার করছে। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা রেড ক্রস ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, মেডিক্যাল টিমের যে সদস্যদের ইসরাইল আটক করেছে তাদের ব্যাপারে তদন্ত করুন এবং অতি দ্রুত তাদের ছাড়ানোর ব্যাপারে পদক্ষেপ নিন।’

‘আমরা আল-শিফা হাসপাতাল থেকে রোগীদের উদ্ধার করতে উত্তর গাজার মেডিক্যাল টিমকে দ্রুত দক্ষিণে আসতে বলেছি,’ বলেন তিনি।

গাজা যুদ্ধ দ্রুত বন্ধ করা প্রয়োজন : জাতিসঙ্ঘ ত্রাণ প্রধান

গাজা ‍যুদ্ধ অতি দ্রুত বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসঙ্ঘের ত্রাণ প্রধান মার্টিন গ্রিফিথস। বৃহস্পতিবার সামাজিক মাধ্যম এক্সে (টুইটার) আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্প্রদায়ের প্রতি তিনি বলেন, ‘একটাই এবং পরিষ্কার বার্তা : এটা (গাজা যুদ্ধ) দ্রুত বন্ধ করতে হবে।’ অবরুদ্ধ গাজার মানবিক সহায়তার সমন্বয় গ্রিফিথস পরে আবারো যুদ্ধবিরতি শুরু করার আহ্বান জানান।

সূত্র : আলজাজিরা




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!