খুলনা, বাংলাদেশ | ২০ মাঘ, ১৪২৯ | ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

Breaking News

  বিশ্বজুড়ে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১ হাজার ৩০০ জন, আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ১০৪ জন
  আইএমএফের ঋণের ৪৭৬ মিলিয়ন ডলারের প্রথম কিস্তি পেয়েছে বাংলাদেশ

যেভাবে রুটি নরম রাখবেন

গেজেট ডেস্ক

স্বাস্থ্য সচেতন মানুষ ঘরে তৈরি রুটি খেয়ে থাকেন। কারণ এতে অস্বাস্থ্যকর হওয়ার ভয় থাকে না। সেইসঙ্গে খরচও সাশ্রয় হয়। অনেকেই সকালের নাস্তা কিংবা রাতের খাবারে রুটি খেয়ে থাকেন। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় রুটি তৈরি করে রাখার পর তা শক্ত হয়ে যায়। তৈরি করে রাখার পর রুটি নরম রাখার আছে কিছু উপায়। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

হালকা গরম পানি মেশান

রুটি তৈরি করার সময় হালকা গরম পানি দিয়ে ময়দা কিংবা আটা মাখিয়ে নিতে হবে। এর সঙ্গে সামান্য তেলও মেশাতে পারেন। এরপর ভালো করে মাখিয়ে নিতে হবে। এভাবে ডো তৈরি করলে রুটি নরম হবে।

কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন

ময়দা কিংবা আটা মাখা হয়ে গেলে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে। ডো তৈরির পর একটি পরিষ্কার ও ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন। এভাবে রেখে অপেক্ষা করুন পনের-বিশ মিনিট। এতে ডো আরও নরম হবে। ডো তৈরির পরপরই কখনো রুটি তৈরি করতে বসে যাবেন না।

আটা মিশিয়ে বেলতে হবে

রুটি তৈরি করার সময় তার সঙ্গে অবশ্যই শুকনো আটা বা ময়দা দিয়ে বেলবেন। তবে রুটি সেঁকতে দেওয়ার আগে এর গায়ে লেগে থাকা বাড়তি আটা বা ময়দা ঝেড়ে নিতে হবে। রুটির গায়ে বাড়তি ময়দা লেগে থাকলে রুটি শক্ত হয়ে যাবে।

হটপটে রাখুন

অনেকেই রুটি সেঁকে নেওয়ার পর তা খোলা রাখেন। কিন্তু এভাবে রাখলে রুটি ঠান্ডা ও শক্ত হয়ে যায়। পরবর্তীতে তা খেতে আর ভালোলাগে না। তাই রুটি তৈরির পর তা পাতলা কাপড়ে মুড়িয়ে হটপটে রেখে দিন। রুটি গরম ও নরম থাকবে। স্বাদও থাকবে অক্ষুণ্ণ।

টক দই মেশান

রুটি তৈরির সময় মোটা করে তৈরি করলে শক্ত হয়ে যেতে পারে। অপরদিকে পাতলা করে তৈরি করলে নরম থাকে। এমন হলে আটার ডো তৈরি করার সময় তাতে অল্প টক দই মেশান। এতে রুটি নরম থাকবে। খেতেও সুস্বাদু লাগবে। তবে খুব বেশি পাতলা রুটি তৈরি করবেন না। এতে রুটি পাপড়ের মতো শক্ত হয়ে যেতে পারে।

খুলনা গেজেট/এসজেড




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!