খুলনা, বাংলাদেশ | ২০ মাঘ, ১৪২৯ | ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

Breaking News

  বিশ্বজুড়ে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১ হাজার ৩০০ জন, আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ১০৪ জন
  আইএমএফের ঋণের ৪৭৬ মিলিয়ন ডলারের প্রথম কিস্তি পেয়েছে বাংলাদেশ

পোস্টার সাঁটাতে ১১৫ স্থান নির্ধারণ, দিতে হবে ফি

গেজেট ডেস্ক

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) এলাকায় এখন থেকে যেখানে-সেখানে পোস্টার সাঁটানো যাবে না। পোস্টার লাগানোর জন্য নগরের ১১৫টি স্থান নির্দিষ্ট করে দিয়েছে সিটি করপোরেশন। তবে এসব স্থানে বিনামূল্যে পোস্টার লাগানো যাবে না। দিতে হবে নির্দিষ্ট ফি।

নগরের সৌন্দর্য রক্ষা এবং আয় বৃদ্ধির জন্য এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন চসিকের কর্মকর্তারা। তবে এ সিদ্ধান্তে অনুমোদনের নামে বিলবোর্ড ব্যবসার মতো নগরজুড়ে আবারও নৈরাজ্যের আশঙ্কা করছেন নগর পরিকল্পনাবিদরা।

এ বিষয়ে চসিকের ভারপ্রাপ্ত প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেম বলেন, প্রাথমিকভাবে ১১৫টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এর বাইরে পোস্টার লাগালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। টাকার বিনিময়ে নির্ধারিত স্থানে পোস্টার লাগাতে পারবেন আগ্রহীরা। স্থানগুলো ইজারা দেওয়া হবে। তারাই পোস্টার লাগানো ও ওঠানো দেখভাল করবে।

২০১৫ সালের আগ পর্যন্ত নগরের বিভিন্ন মোড় ও সড়ক বিভাজকে বিলবোর্ড স্থাপনের অনুমতি দিত চসিক। এ নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ বিলবোর্ড ব্যবসায়ীদের মধ্যে নৈরাজ্য দেখা দেয়। নামকাওয়াস্তে অনুমোদন নিয়ে ইচ্ছে মতো বিলবোর্ড লাগানো হতো। এমনকি বিলবোর্ড ব্যবসার আধিপত্য নিয়ে খুনোখুনিও হয়। ২০১৫ সালে তৎকালীন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ১০ হাজার বিলবোর্ড উচ্ছেদ করেন। তার পর থেকে বিলবোর্ডের অনুমোদন বন্ধ রয়েছে।

পোস্টার বপের অনুমোদন নিয়ে পুরোনো নৈরাজ্য ফিরে আসবে বলে আশঙ্কা করছেন নগরবাসী। নগর পরিকল্পনাবিদ জেরিনা হোসেন বলেন, পোস্টারের স্থান নির্দিষ্ট করা ভালো সিদ্ধান্ত। অতীতে বিলবোর্ড অনুমোদন দেওয়া হলে পুরো নগর ছেয়ে গিয়েছিল। কেউ কোনো নীতিমালাই মানেননি। এবারও একই দশা হলে তা বাড়তি নাগরিক যন্ত্রণা হবে। পোস্টার লাগানোর জন্য যেসব স্থান নির্ধারণ করা হবে, ওই এলাকার মানুষের মতামত নেওয়ার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি।

২০১২ সালের দেয়াল লিখন ও পোস্টার লাগানো (নিয়ন্ত্রণ) আইন অনুযায়ী, দেয়াল লিখন বা পোস্টার লাগানোর নিয়ম না মানলে সংশ্নিষ্ট ব্যক্তি বা কোম্পানিকে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানাসহ বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ডের বিধান রয়েছে।

যেসব জায়গায় পোস্টার লাগানো যাবে: নগরের অপিজেন মোড়ে দুটি, বায়েজিদ বোস্তামি গেটের পাশে খালি জায়গা, শেরশাহ মোড়, টেকনিক্যাল মোড়, নয়াহাট মোড়, বহদ্দারহাট মোড়ে দুটি, কাপ্তাই রাস্তার মাথা, চান্দগাঁও থানার মোড়, মুরাদপুরে দুটি, হামজারবাগ মোড়, বিপ্লব উদ্যান, দুই নম্বর গেট, জিইসি মোড়ে তিনটি, মির্জাপুল সুগন্ধার মুখে, ওমেন কলেজের গেটের পাশে, মিনারের পাশে, একে খান মোড়, কর্নেলহাট বাজার, ১১ নম্বর ওয়ার্ড অফিস সংলগগ্ন, ১২ নম্বর ওয়ার্ড, কাঁচা রাস্তার মাথা, ১২ নম্বর ওয়ার্ড চাল বাজার, ওয়্যারলেস মোড়, লালখান বাজারে দুটি, গোলপাহাড় মোড়, বাওয়া স্কুল ও কলেজ গেটের পাশে, শিল্পকলা সংলগ্ন, কাজীর দেউড়ি মোড়, আউটার স্টেডিয়াম, ওয়াসা মোড়, গুলজার মোড়, চকবাজার চক সুপার মার্কেট, প্যারেড মাঠ চট্টগ্রাম কলেজের গেট সংলগ্ন ফুটপাত, মহসীন কলেজের গেট সংলগ্ন ফুটপাত, চকবাজার কাঁচাবাজার ধনিয়ার পুল সংলগ্ন, অলি খাঁ মসজিদ এলাকা, চট্টগ্রাম মেডিকেলের পূর্ব গেট সংলগ্ন ফুটপাত, চমেক মেইন গেট সংলগ্ন ফুটপাত, প্রবর্তক মোড়, কালামিয়া বাজার সংলগ্ন, কল্পলোক আবাসিকের গেট, চান্দগাঁও আবাসিকের মাঠ সংলগ্ন ফুটপাত, আন্দরকিল্লা মোড়ে দুটি, চেরাগি পাহাড় মোড়, জামালখান মোড়, সিআরবি, টাইগারপাস মোড়, ডিসি হিল গেট, দেওয়ানহাট মোড়, চৌমুহনী মোড়, বেপারিপাড়া মোড়, বাদামতল মোড়ে দুটি, বড়পুলে দুটি, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতাল গেট সংলগ্ন, আগ্রাবাদ শিশুপার্ক ও জাম্বুরি পার্ক সংলগ্ন, নয়াবাজার মোড়, পিসি রোড, ২৯ নম্বর ওয়ার্ড অফিস সংলগ্ন, ইসলামিয়া কলেজের মোড়, সিটি কলেজ গেট, নিউমার্কেট মোড়ে চারটি, আমতল, মিউনিসিপ্যাল স্কুল গেট, রেলস্টেশনে দুটি, রিয়াজুদ্দিন বাজার সংলগ্ন, কোতোয়ালি মোড়, কোর্ট বিল্ডিংয়ে তিনটি, হকার মার্কেট গেট, লালদীঘি মসজিদ সংলগ্ন, টেরিবাজার মোড়, ফিরিঙ্গিবাজার ওয়ার্ড অফিস সংলগ্ন, গির্জার মোড়, চার্চের গেট সংলগ্ন, আনসার ক্লাব মোড়, নতুন ব্রিজ এলাকায় দুটি, নিমতলা মোড়, বন্দর ও কাস্টমস অফিস সংলগ্ন, সল্টগোলা ক্রসিং, ইপিজেড মোড়ে দুটি, নেভি কলেজের গেট সংলগ্ন, আকমল আলী রোডের মুখে, সিমেন্ট ক্রসিং, স্টিল মিল বাজার এরিয়া, কাটগড়, সি বিচে দুটি, বিমানবন্দর ও নেভাল এরিয়ায় দুটি, বোটক্লাব এলাকা, কাপাসগোলা মোড়, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া গেট, কাতালগঞ্জ ইবনে সিনা ল্যাব সংলগ্ন, গণি বেকারি, হাজেরা তজু ডিগ্রি কলেজ গেট, এমএইএস কলেজ গেট, পোর্ট স্টেডিয়াম গেট, অলংকার মোড়, সিডিএ মার্কেট, কে ব্লকের মুখে সিলভার বেলস স্কুল গেট, মিমি সুপার ও আগোরার পাশে সুবিধাজনক স্থান, জামালখান সিপিডিএল অফিস সংলগ্ন খালি জায়গা, সিনেমা প্যালেস এলাকা, চান্দগাঁও ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজ গেট, বিএড কলেজ গেট, বহদ্দারহাট কাঁচাবাজার গেট সংলগ্ন, মেরিন সিটি মেডিকেলগামী রোডের মুখে টেপটাইল মোড়, ফিনলে ও মিনাবাজার সংলগ্ন খালি জায়গা, শপিং কমপ্লেপের পেছনে পার্কিং এলাকা, সানমারের সামনে, সিঙ্গাপুর-ব্যাংকক মার্কেটের সামনে, হালিশহর বিডিআর মাঠ, আগ্রাবাদ ২৪ তলা ভবনের সামনে, কমার্স কলেজ গেট, জেনারেল হাসপাতালের সামনে, গরিবুল্লাহ শাহ মাজার ও দামপাড়া বাসস্ট্যান্ড এলাকা, ডিটি রোড পাসপোর্ট অফিস সংলগ্ন, গোলজার মোড় থেকে মেডিকেল হোস্টেলে যাওয়ার পথে হাতের বাঁ পাশে খালি জায়গা ও বহদ্দারবাড়ি পুকুরের পাশে ফুটপাতে পোস্টার সাঁটার জন্য নির্ধারণ করেছে সিটি করপোরেশন।




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!