খুলনা, বাংলাদেশ | ৪ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১৯ জুলাই, ২০২৪

Breaking News

  কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি রোববার; বিশেষ চেম্বার আদালতের আদেশ
  রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বরে পুলিশ বক্সে আগুন দি‌য়ে‌ছে বি‌ক্ষোভকারীরা

জয়ের লড়াকু সেঞ্চুরিতে স্বস্তির ড্র

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘এ’ দলের রান পাহাড়ে চাপা পড়েনি বাংলাদেশ ‘এ’ দল। মাহমুদুল হাসান জয়ের লড়াকু সেঞ্চুরিতে শেষ পর্যন্ত স্বস্তির ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

উইন্ডিজ ‘এ’ দলের দেওয়া ৪৬০ রানের লিডের জবাবে খেলতে নেমে শুক্রবার (২ জুন) শেষ দিন বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটে ৩০৬ রান করে। ড্র হয় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি। তিন ম্যাচ সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতেছে উইন্ডিজ। এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচটিও ড্র হয়।

প্রথম ইনিংসে সফরকারীরা ৪৪৫ রান করে। বাংলাদেশ জবাবে ২০৫ রানে অলআউট হয়। স্বাগতিকদের ফলোঅনে ফেলার সুযোগ থাকলেও সেটি করেনি উইন্ডিজ। দ্বিতীয় ইনিংসে আবার ব্যাটিং করতে নেমে ৫ উইকেটে ২২০ রানে ইনিংস ঘোষণা করে উইন্ডিজ। পাড়াহসম লিডের বোঝা কাঁধে নিয়ে খেলতে নেমে জয়দের দারুণ লড়াইয়ে ড্রয়ের দিকে গড়ায় ম্যাচটি।

তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটা হয় দারুণ। কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৭ রানে দিন শেষ করে দেন দুই ওপেনার জয়-জাকির হাসান। ২৮ রানে দিন শুরু করা জয় তুনে নেন সেঞ্চুরি, চতুর্থ দিন পুরোটাই ব্যাটিং করেন এই ডানহাতি ওপেনার। ধৈর্য্যের পরিচয় দিয়ে সারাদিন জুড়ে একপ্রান্তে আগলে রাখেন তিনি।

২২৩ বলে দেখা পান শতকের দেখা। শেষ পর্যন্ত জয় অপরাজিত ছিলেন ২৬৮ বলে ১১৪ রান করে। তার ইনিংসে চারের মার ছিল ১৪টি। জয়ের সঙ্গে ১৪ রানে দিন শুরু করা জাকির থামেন ৪৩ রানে। জাকির ফেরার পর মুমিনুল হক (৫) ক্রিজে এসে দ্রুতই ফেরেন। দ্বিতীয় ইনিংসেও তিনি দুই অঙ্কের ঘর পেরোতে পারেননি।

তৃতীয় ম্যাচে অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া সাইফ হাসান থিতু হয়ে ফেরেন সাজঘরে। ৪৯ বলে ৩৮ রান করেন তিনি। এরপর জয়ের সঙ্গী হন ইয়াসির আলী রাব্বি। দুজনে শতরানের জুটি গড়ে ম্যাচের নাটাই নিজেদের হাতে নিয়ে নেন। রাব্বি ৮৫ বলে ৬৭ রান করে ফেরেন সাজঘরে।

রাব্বির বিদায়ের পর শাহাদাত হোসেনকে (২০) সঙ্গে নিয়ে দিন শেষ করে আসেন জয়। দুজনের জুটি থেকে আসে ২৯ রান। এক প্রান্তে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়লেও আরেক প্রান্ত জয় আগলে রেখেছিলেন। তাতে বিপদে পড়তে হয়নি স্বাগতিকদের।

সিলেটে পুরো সিরিজ জুড়েই বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে ছিল অস্বস্তি। ব্যাটিং ব্যর্থতায় হারতে হয়েছে দ্বিতীয় ম্যাচ। এই হারে গড়ে দেয় সিরিজের পার্থক্য। তবে শেষ ম্যাচের শেষ ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিং কিছুটা হলেও স্বস্তি দেবে টিম ম্যানেজম্যান্টকে। উইন্ডিজের হয়ে ৩ উইকেট নেন কেভিন সিনক্লেয়ার।

 

খুলনা গেজেট/এনএম




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!