খুলনা, বাংলাদেশ | ১১ আষাঢ়, ১৪২৮ | ২৫ জুন, ২০২১

Breaking News

  ২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্পসহ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ
  পাবনায় প্রতিবন্ধী ভিক্ষুককে ছুরিকাঘাতে হত্যা, এক নারীকে আটক
  এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু ২৭ জুন
  সারাদেশে ২৫ হাজার ব্যাংকার করোনা আক্রান্ত, মারা গেছেন ১৩৩ জন
  সারাদেশে শাটডাউনের প্রস্তুতি আছে সরকারের : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী, আগের চেয়ে কঠোর হচ্ছে বিধি-নিষেধ

চাকুরী ফেরত ও বকেয়া বেতন চান বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের ২১১ আউটসোর্সিং কর্মচারী

নিজস্ব প্রতিবেদক

চাকুরী ফেরত, বকেয়া বেতন পরিশোধসহ স্বাস্থ্য খাতের নানা অনিয়ম নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে খুলনা জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের ২১১ জন আউটসোর্সিং কর্মচারী। আজ রবিবার (২ মে) বেলা সাড়ে এগারটায় খুলনা প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন হাসিবুল ইসলাম।

তিনি বলেন, মেসার্স তাকবীর এন্ট্রারপাইজ নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ২০১৯ সালের মে মাস থেকে আমরা ২১১ জন কর্মচারী নিয়োগ পাই। ২০২০ সালে জুলাই মাস পর্যন্ত বেতন দেয়া হয়। এরপর বেতন বন্ধ হয়ে যায়। এরই মধ্যে ঠিকাদার পরিবর্তনের গুঞ্জন শোনা যায়।

সম্প্রতি বিদায় নেয়া খুলনার সিভিল সার্জন জনাব ডাঃ সুজাত আহমেদ আমাদেরকে জানিয়ে দেন যে, তোমাদের চাকুরী নেই। এজন্য তিনি একটি অফিসিয়াল চিঠিও ইস্যু করেন। যদিও তিনি নিজেই আমাদের সেবা নিয়ে থাকেন। অন্যান্য সকল চিকিৎসক ও কর্মকর্তারা আমাদের সেবা নেন। সর্বশেষ তৎকালিন সিভিল সার্জন আমাদেরকে নতুন ঠিকাদার কন্ট্রাক্ট ক্লিনিংয়ের মালিক ফারুক হোসেন হেমায়েতের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। কিন্তু ঠিকাদার ফারুক আমাদের ফোন রিসিভ করেন না। পক্ষান্তরে বিভিন্ন লোক মারফত আমাদের কাছে প্রস্তাব দেয়া হয় যদি চাকুরীতে বহাল থাকতে হয় তাহলে মোটা অংকের অর্থ দিতে হবে। এজন্য কারও কারও কাছে টাকার অংকও উল্লেখ করা হয়। বলা হয় আমাদেরকে যদি চাকুরীতে বহাল থাকতে হয় তাহলে দুই লক্ষ করে টাকা দিতে হবে। আমাদের কাছে টাকা না পেয়ে তিনি আমাদেরকে বাদ দিয়ে বাইরের লোক নিয়োগ দিয়ে বিভিন্ন স্থানে পদায়ন দিচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, তৎকালিন সিভিল সার্জন গোপালগঞ্জে বদলী হলে আমরা মনে করেছিলাম নবাগত সিভিল সার্জন আমাদের দিকে সদয় হবেন, আমাদের পরিবারের সদস্যদের দিকে তাকাবেন। কিন্তু বর্তমান ঠিকাদারের কাছে তিনিও যেন অসহায়। নতুন কন্ট্রাক্টরের সাথে ৩শ’ টাকা স্ট্যাম্পে নন জুডিশিয়াল চুক্তি করে অবৈধ নতুন নিয়োগ আউসোসিং কর্মচারীদের বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে পদায়ন দিয়েছেন।

গত ১৯ মার্চ তাদের চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও প্রশাসনিক অনুমোদন আনতে সক্ষম হননি। তারপরেও বর্তমান সিভিল সার্জন নতুন আউটসোসিং কর্মচারীদের আবার সময় দেন।

সংবাদ সম্মেলনে তারা তাদের পরিবারের দুদর্শা তুলে ধরে বলেন, আমরা আমাদের চাকুরী ফেরত চাই, বকেয়া বেতন চাই। আমাদের বকেয়া বেতন না দেয়া হলে আমরা রাস্তায় বসতে বাধ্য হবো। আমাদের সন্তানদের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের আউটসোর্সিং এর কর্মচারিরা উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা গেজেট/ এস আই







খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692