খুলনা, বাংলাদেশ | ১০ বৈশাখ, ১৪৩১ | ২৩ এপ্রিল, ২০২৪

Breaking News

খুলনায় বিএনপি’র গণঅবস্থান বুধবার, এখনো মেলেনি অনুমতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকারের পদত্যাগসহ ১০ দফা যুগপৎ আন্দোলনের দ্বিতীয় ধাপের কর্মসূচি হিসেবে আগামী ১১ জানুয়ারি বুধবার খুলনায় গণঅবস্থান কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। গণঅবস্থানের অনুমতি চেয়ে গত শনিবার খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে আবেদন করেছে দলটির নেতারা। তবে সোমবার দুপুর পর্যন্ত পুলিশের অনুমতি মেলেনি।

এদিকে গণঅবস্থান কর্মসূচি বানচাল করতে পুলিশ নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে দলটির নেতারা। সোমবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতার অভিযোগ করেন, ২৭নং বিএনপি নেতা মিশকাতকে গ্রেফতার এবং অসংখ্য নেতাকর্মীর বাড়ি বাড়ি অভিযান চালানো হচ্ছে। তারা পুলিশকে হয়রানি না করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

খুলনা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন জানান, বুধবার বেলা ১১টায় অবস্থান কর্মসূচি শুরু হবে, শেষ হবে বিকাল তিনটায়। গণঅবস্থানের জন্য নগরীর ডাকবাংলা সোনালী ব্যাংক চত্বর ও দলীয় কার্যালয় চত্বর ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে কেএমপিতে আবেদন করা হয়েছে। দলের একজন স্থায়ী কমিটির সদস্য কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি এবং ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন। খুলনা খুলনা বিভাগের বিভিন্ন জেলার নেতাকর্মীরা এই কর্মসূচি যোগ দেবে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, কর্মসূচি বানচাল করতে বরাবরের মতো পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের কমিটির হয়রানি করছে। বিশেষ করে খুলনার পুলিশের কিছু কর্মকর্তা বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছে পরিবার পরিজনের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করছে। পুলিশের ভয়ে হাজার হাজার নেতাকর্মী বাড়িছাড়া বাইরে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলন

১১ জানুয়ারি খুলনায় বিভাগীয় গণঅবস্থান কর্মসুচি সফল ও পুলিশের হয়রানির প্রতিবাদে সোমবার (৯ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় কেডি ঘোষ রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি। সেখানে বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনার পক্ষে লিখিত বক্তব্যে পড়ে শোনান মহানগর
বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি  বলেন,  ২০২১ সালের ২৯ মার্চ কেন্দ্র ঘোষিত খুলনায় কর্মসুচি পালনকালে পুলিশের অতর্কিত হামলায় ২০ জন রক্তাক্ত আহত হয়। মারাত্মক আহত হন ৩১ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপি
নেতা মোহাম্মাদ বাবুল কাজি। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ওই বছর ১১ এপ্রিল মারা যান। ২০২২ সালের ৫ই খুলনায় কর্মসুচি পালনকালে খুলনা থানার ওসির নেতৃত্বে বিপুলসংখ্যক পুলিশ কোনো কারণ ছাড়াই লাঠিচার্জ শুরু করে। ওসি নিজেই বিএনপি নেতা ফখরুল আলমের মাথা লক্ষ্য করে নির্মমভাবে লাঠির আঘাত করে। পুলিশের লাঠির আঘাতে বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ফখরুল আলম
মারাত্মক রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তার কপাল ও বাম চোখ ফেটে রক্তপাত হতে থাকে। দেশে-বিদেশে চিকিৎসা করানোর হলেও তার একটি চোখ নষ্ট হয়ে গেছে। এভাবে চলতে পারেনা-চলতে দেয়া যায় না।

তুহিন আরো উল্লেখ করেন, খুলনার পুলিশ প্রশাসন গেল ডিসেম্বর মাসে গায়েবী, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, অবাস্তব ও কল্পনাপ্রসূত অভিযোগে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মোট ১৪ টি মামলা
দায়ের করেছে। সেসব মামলায় আসামী হয়েছেন বিএনপি এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের
প্রায় সাড়ে ৮শ’ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। বানোয়াট গায়েবী এসব মামলায় মহানগরীর
৪০জন এবং জেলার ৩৭ জন নেতাকর্মী কারাবন্দী রয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলন থেকে খুলনা মহানগর বিএনপির সম্মানিত সদস্য রকিবুল ইসলাম বকুলকে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মনোনিত করায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে অভিনন্দন জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির আহবায়ক আমীর এজাজ খান, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আবু হোসেন বাবু, খান জুলফিকার আলী জুলু, স ম আব্দুর রহমান, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, শের আলম সান্টু, বদরুল আনাম খান, চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন, মাসুদ পারভেজ বাবু, শেখ সাদী, এনামুল হক সজল, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, আব্দুর রাজ্জাক, হাফিজুর রহমান মনি, মজিবুর রহমান, মুর্শিদ কামাল,
কে এম হুমায়ুন কবির, একরামুল কবির মিলটন, শেখ ইমাম হোসেন, আহসান উল্লাহ বুলবুল, শেখ আসগর আলী, মনিরুজ্জামান লেলিন, মো. আব্দুল হালিম, এস এম মুর্শিদুর রহমান লিটন, মোল্লা ফরিদ আহমেদ, মো. নাসির খান, তারিকুল ইসলাম, মিজানুর রহমান মিলটন, শফিকুল ইসলাম শফি, আলী আক্কাস, খন্দকার ফারুক হোসেন, রফিকুল ইসলাম বাবু, রাহাত আলী লাচ্চু, শামসুল বারিক পান্না,
ইস্তিয়াক আহমেদ ইস্তি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, শফিকুল ইসলাম শাহিন, এবাদুল
হক রুবায়েত, মো. জাবির আলী প্রমুখ।

খুলনা গেজেট/ বিএমএস




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!