খুলনা, বাংলাদেশ | ২ মাঘ, ১৪২৭ | ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

Breaking News

  ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৪২
  দ্বিতীয় ধাপে ৬০ টি পৌরসভায় ভোট আজ

কেন ফিজিওথেরাপি বিষয়ে পড়াশোনা করবেন?

ড. এস এম ফরহাদ জামান

ফিজিওথেরাপি একটি অত্যন্ত উপকারি চিকিৎসা ব্যবস্থা যা বিশেষভাবে বিভিন্ন ধরনের আঘাত ও রোগব্যধির জন্য প্রযোজ্য হয়। ফিজিওথেরাপি শারীরিক পদ্ধতিগত চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রয়োগের মাধ্যমে আক্রান্ত জায়গাগুলোর কার্যক্রম ও নড়াচড়া পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করে। ফিজিওথেরাপি চিকিৎসাব্যবস্থা পূর্বের ক্ষতিগ্রস্ত শারীরিক অংশগুলোকে পরবর্তী ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে। যে কোন বয়সের লোক তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও রোগ প্রতিরোধ এর জন্য ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারেন। জন্মের পর থেকে শুরু করে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। বাস্তবিকভাবে জীবনের যে কোন সময়ে ফিজিওথেরাপি আপনার স্বাস্থ্য ও জীবনের জন্য উপকারি হয়ে দেখা দিতে পারে। ফিজিওথেরাপি একটি ব্যবহারিক ও ডিগ্রি ভিত্তিক পেশা। এখানে পড়াশোনার ব্যপকতা টেকনিশিয়ান হতে শুরু করে পি এইচ ডি পর্যন্ত বিস্তৃত। তাই এ পেশায় যারা ক্যরিয়ার গড়তে ইচ্ছুক তাদের অবশ্যই প্রথমে উপযুক্ত শিক্ষা জীবন শেষ করতে হবে। ফিজিওথেরাপি সংক্রান্ত যে কোন ধরনের চিকিৎসা গ্রহণের জন্য পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার উপকারিতা বিজ্ঞান সম্মত গবেষণার দ্বারা প্রমানিত এবং এ বিষয়ে আন্তজাতিক ভাবে স্বীকৃত হাজারের ও বেশি সায়েন্টিফিক নিবন্ধ রয়েছে।

সমাজে ব্যপক অবদান রাখার কারণে ইউরোপ, আমেরিকাসহ পৃথিবীর অনেক দেশে ফিজিওথেরাপি পেশাকে অত্যাধিক গণ্য করা হয়।

যে সব কারনে আপনি ফিজিওথেরাপি পড়াশোনা করবেনঃ

১। ব্যপকভাবে বিস্তৃত কাজের সম্ভাবনাঃ ফিজিওথেরাপিস্ট বা ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের চাহিদা স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। এ বিষয়ে পড়াশোনা করে আপনি প্রতিযোগিতা মূলক কাজের বাজারে সহজেই চাকুরি জোগাড় করতে পারবেন। যেহেতু ফিজিওথেরাপি পেশাজীবীদের বিশ্বব্যাপী চাহিদা রয়েছে তাই বিদেশে ও এদের কাজের সুযোগ ব্যপক।

২। থেরাপিউটিক স্পর্শঃ পৃথিবীতে খুব কম পেশা ই আছে যারা ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের মত হাতের স্পর্শে রোগী সুস্থ করতে পারেন। একজন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক তার হাতের স্পর্শে রোগীর ব্যথা কমান, তাকে চলনক্ষম করেন, তার শরীরে শক্তি তৈরি করেন, শরীরের বিভিন্ন অংশকে নমনীয় করেন ও শক্তির সঞ্চার করেন। ধর্মীয় দিক দিয়ে বিবেচনা করলেও এ পেশার গুরুত্ব ব্যপক।

৩। আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্যতাঃ ফিজিওথেরাপিস্ট গণ রোগীদের মধ্যে শারীরিক সক্ষমতা তৈরি করেন ভিন্ন ভিন্ন বৈশিষ্ট্যময় কাজের মধ্য দিয়ে। আপনি জাতীয় ক্রীড়া দল এ কাজ করতে পারেন, পুনর্বাসন এ কাজ করতে পারেন, ওমেন্স হেল্থ ইস্যু তে কাজ করতে পারেন অথবা বয়স্কদের নিয়ে কাজ করতে পারেন। আপনি আপনার দক্ষতাকে কাজে লাগাতে পারেন শিক্ষা এবং গবেষণায় আত্মনিয়োগ এর মাধ্যমে।

৪। ব্যাপক কর্ম সন্তুষ্টিঃ ফিজিওথেরাপি পেশায় আপনি প্রতিনিয়ত নতুন জিনিস শিখতে পারবেন এবং সাধারন মানুষদের সাহায্য করতে পারবেন। আপনি যখন দেখবেন রোগীরা তাদের সুস্থতার মাধ্যমে নতুন নতুন লক্ষ্য অর্জন করতে পারছে তখন আপনার শেখাটা ফলপ্রসু মনে হবে।

৫। কর্মস্থলের ভিন্নতাঃ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের কাজের জায়গা গুলোর মধ্যে রয়েছে হাসপাতাল, বাক্তিগত সেবাদান কেন্দ্র, স্কুল, কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্র, জিমনেসিয়াম, নার্সিং হোম ইত্যাদি। অনেক ফিজিওথেরাপিস্ট তাদের বাড়িতে থেকে কাজ করেন, কেউ কেউ অন লাইন ভিত্তিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন- যেসব রোগী দূরবর্তী স্থানে থাকেন তাদের জন্য।

৬। ফাস্ট কন্টাক্ট প্রফেশনঃ ইউরোপ, আমেরিকা সহ পৃথিবীর অনেক দেশে রোগীরা সরাসরি উচ্চ মানসম্পন্ন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের নিকট সেবা গ্রহণ করেন কোন প্রকার মেডিকেল রেফেরাল ছাড়া। যেটা পেশার প্রতি সাধারন মানুষের উচ্চ বিবেচনা এবং বিশ্বাস এর প্রমান বহন করে।

৭। পেশাগত ও ব্যক্তিগত উন্নয়নঃ যেহেতু ফিজিওথেরাপি একটি ক্রমাগত বিকাশমান একটি পেশা তাই ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকদের উন্নতির সুযোগ অসীম। সমাজ এবং যোগাযোগ দক্ষতার উন্নয়নের সাথে সাথে একজন ফিজিওথেরাপিস্ট এর ব্যক্তি উন্নয়ন ও সাধিত হয়।

৮। কথা বলার সামর্থ্যহীনদের হয়ে কথা বলাঃ যাদের কথা সমাজের কান পর্যন্ত পৌছায়না, যেমনঃ প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, বয়স্ক, শারীরিকভাবে অক্ষম, শিশু এবং কিশোর। তাদের হয়ে কথা বলার সুযোগ একজন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক পেয়ে থাকেন।

৯। সামগ্রিক এবং ব্যক্তি কেন্দ্রিক অনুশীলনঃ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকগণ একজন রোগীকে অ্যানাটমি, ফিজিওলজি, প্যাথলজি এর বাইরে ও তার সামগ্রিক চিন্তা ভাবনা ও অনুভূতিকে মূল্যায়ন করে। মানসম্পন্ন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসকবৃন্দ তাদের রোগীদের উজ্জীবিত করে স্বাস্থ্য সম্মত জীবন যাপনে ও অধ্যাবসায়য়ের প্রতি, যদিও এটা দুর্গম বাঁধার সমতুল্য হয়।

জিরো পেইন বাংলদেশ ফাউন্ডেশন এর অধীনে প্রতিষ্ঠিত জিরো পেইন ইন্সটিটিউট অব হেলথ সায়েন্স, খুলনায় বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল অধিভুক্ত ১৮ মাস মেয়াদি ফিজিওথেরাপি টেকনিশিয়ান কোর্স এ সীমিত সংখ্যক আসনে ভর্তি কার্যক্রম চলছে। ভর্তির শেষ তারিখ ২০ জানুয়ারি, ২০২১। সফলতার সাথে কোর্স সম্পন্ন কারীদের ফাউন্ডেশন এর নিজস্ব প্রতিষ্ঠানে চাকুরির নিশ্চয়তা রয়েছে। বর্তমানে চাকুরির তীব্র প্রতিযোগিতামূলক বাজারে এটি নিঃসন্দেহে একটি ভাল সুযোগ হতে পারে। এই কোর্স করে আপনি স্বাস্থ্য সেবার সাথে যুক্ত অন্য প্রতিষ্ঠানে ও কাজের সুযোগ পেতে পারেন। বর্তমানে ফিজিওথেরাপি পেশা সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলদেশ রিহ্যবিলিটেশন কাউন্সিল দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।
জিরো পেইন ইন্সটিটিউট অব হেলথ সায়েন্স পুনর্বাসন স্বাস্থ্যখাতে কাজ করতে আগ্রহীদের মানসম্পন্ন দক্ষ জনশক্তিতে রুপান্তরিত করতে নিবেদিত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ক্রমান্বয়ে এটি উচ্চতর শিক্ষা প্রদানে অগ্রগামী হতে বদ্ধপরিকর।

লেখকঃ মাস্কুলোস্কেলেটাল (ম্যাকানিক্যাল) পেইন স্পেশালিষ্ট, প্রিন্সিপাল (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী অধ্যাপক (ফিজিওথেরাপি), জিরো পেইন ইন্সটিটিউট অব হেলথ সায়েন্স, সোনাডাঙ্গা আ/এ (১ম ফেজ), খুলনা ও সভাপতি, বাংলাদশে ফিজিওথেরাপি এসোসিয়েশন, খুলনা বিভাগ। মোবাইলঃ ০১৯১২-৯৮৫০৫২।

 

খুলনা গেজেট/এনএম




আরও সংবাদ




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692