খুলনা, বাংলাদেশ | ৮ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ২৩ জুলাই, ২০২৪

Breaking News

  কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি রোববার; বিশেষ চেম্বার আদালতের আদেশ
  রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বরে পুলিশ বক্সে আগুন দি‌য়ে‌ছে বি‌ক্ষোভকারীরা

কুষ্টিয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলা, অপহরণের চেষ্টা

গেজেট ডেস্ক

কুষ্টিয়া সদরে আবু আহাদ আল মামুন নামে এক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীর ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। শুধু হামলাই নয়, তাকে অপহরণেরও চেষ্টা করা হয়। সোমবার (৬ মে) নির্বাচনি প্রচারণা শেষ দিনে রাত সাড়ে ৮টায় কুষ্টিয়া শহরের বড় স্টেশনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় হামলার শিকার উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আহাদ কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ইতোমধ্যে পুলিশ ৩ জনকে গ্রেপ্তারও করেছে। তবে এই হামলার পেছনে সরাসরি জড়িত আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী আতাউর রহমান আতা। তিনিই হামলার নির্দেশদাতা বলে জানান মামুন। তিনি বর্তমানে কুষ্টিয়ার আড়াইশ’ শয্যার হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এ বিষয়ে আবু আহাদ আল মামুন জানান, যেহেতু নির্বাচনি প্রচারণার শেষ দিন ছিল সোমবার। তাই শেষ মুহূর্তে ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছিলাম। এমন সময় বেশ কয়েকজন আমার ওপর সশস্ত্র হামলা চালায় এবং আমাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তারা বলে, কার বিরুদ্ধে ভোট করছিস জানিস? এর আগেও ভোট থেকে নাম প্রত্যাহারের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আতাউর রহমান আতার লোক জেলা পরিষদ সদস্য জহুরুল ও ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান তাকে হত্যার হুমকি দেয়। ঢাকার বাসায় গিয়েও তাকে খোঁজাখুঁজি করা হয়। এছাড়াও কুষ্টিয়া শহরে নির্বাচনি প্রচার মাইক ভাঙচুর ও প্রচারকারীকে মারধর করেছে বলেও অভিযোগ করেন আল মামুন।

এ বিষয়ে আতাউর রহমান আতার সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কেউ ভিত্তিহীন কথা বললে এতে আমার কিছুই করার নাই। আমি একজন প্রার্থী ও রানিং উপজেলা চেয়ারম্যান আমিই তাকে চিনি না। কি কারণে আমার লোকজন তাকে মারবে? প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী থাকলে হয়তো মেরে জনসমর্থন বাড়াতে চায়। কুষ্টিয়াতে তার জনসমর্থন আছে বলে আমার তো মনে হয় না। মারধরের বিষয়টি ভিত্তিহীন।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পলাশ কান্তি নাথ জানান, খবরটি শুনেই হাসপাতালে গিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছি। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে ১১জনকে আসামি করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এরই মধ্যে ৩ জনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। এদিকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আবু আহাদ আল মামুনের ওপর হামলার ঘটনা জেলাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। চলছে আলোচনা সমালোচনাও।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা ও বাংলাদেশ জনতা ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আবু আহাদ আল মামুন।

প্রসঙ্গত, আতাউর রহমান আতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফের চাচাতো ভাই।

খুলনা গেজেট/কেডি




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!