খুলনা, বাংলাদেশ | ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জুলাই, ২০২৪

Breaking News

  কুষ্টিয়ায় সেপটিক ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেল ২ রাজমিস্ত্রির
  পঞ্চম বর্ষে পা রাখলো ‘খুলনা গেজেট ‘। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সকল পাঠক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের শুভেচ্ছা।

উপকূলের আরও কাছে ঘূর্ণিঝড় বিপর্যয়, করাচিতে ১৪৪ ধারা জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বিপর্যয়’ শক্তি ধরে রেখে সর্বশেষ ১২ ঘণ্টায় আরও উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে সরেছে। শনিবার (১০ জুন) এক সতর্ক বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানের আবহাওয়া দপ্তর।

এতে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি ১৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশে, ৬৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি পূর্ব দাঘ্রিমাংশে এবং দক্ষিণ করাচি থেকে ৯১০ কিলোমিটার, দক্ষিণ ঠাট্টা থেকে ৮৯০ কিলোমিটার এবং ওরমারা থেকে ৯৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছিল।

ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে এখন থেকেই সতর্কতা অবলম্বন শুরু করেছে পাকিস্তান। এর অংশ হিসেবে দেশটির বন্দর নগরী করাচিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার ঝড়টি করাচি থেকে ১ হাজার ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছিল।

পাক আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, বর্তমানে যে আবহাওয়া বিরাজ করছে সেটি ঘূর্ণিঝড়টি আরও শক্তিশালী হতে সহায়ক হবে।

তবে ঘূর্ণিঝড়টি ঠিক কোথায় আঘাত হানবে সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না বলে জানানো হয়েছে সতর্কতা বার্তায়।

পাকিস্তানের আবহাওয়া দপ্তর আরও জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি আগামী ১৮ থেকে ২৪ ঘণ্টায় উত্তর/উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হতে থাকবে। এরপর এটি সামান্য উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে সরবে।

করাচিতে ১৪৪ ধারা জারি

ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলের দিকে এগিয়ে আসায় করাচিতে শনিবার ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

করাচির সব সমুদ্র সৈকতে সাধারণ মানুষের প্রবেশ ও বিচরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এছাড়া শহরের বেসামরিক প্রশাসন রোববার (১১ জুন) থেকে সাগরে মাছ ধরা, নৌকা চলাচল, সাঁতার কাটা ও গোসল নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাব শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

সমুদ্রে জাহাজডুবি ও অন্যান্য অপ্রত্যাশিত ঘটনা এড়াতে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। সূত্র: জিও নিউজ।

 

খুলনা গেজেট/এনএম




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!