খুলনা, বাংলাদেশ | ২৯ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জুলাই, ২০২৪

Breaking News

  কুষ্টিয়ায় সেপটিক ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেল ২ রাজমিস্ত্রির
  পঞ্চম বর্ষে পা রাখলো ‘খুলনা গেজেট ‘। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সকল পাঠক, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের শুভেচ্ছা।

ঈদুল আজহা নিয়ে যা ভাবছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

অর্ক মন্ডল, খুবি 

পবিত্র ঈদুল আজহা। মুসলিম জাহানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ধর্মীয় উৎসব। ঈদুল আজহাকে বলা হয় ত্যাগের মহিমায় উজ্জীবিত হওয়ার উৎসব।ঈদ মানেই সকলের কাছে হাসি,খুশি,আনন্দ ও খুনসুটির উৎসব।ঈদ মানে শতপ্রাণের উচ্ছ্বাস। ঈদ নিয়ে কারো আগ্রহের কোনো কমতি থাকে না। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেও এটা একই রকম বরং একটু বেশিই বলা চলে।কারণ পড়ালেখার ব্যস্ততা, টিউশন এবং অধিকাংশ শিক্ষার্থীর দূর দূরান্তে বাসা থাকায় অনেকেই সবসময় বাড়ি যেতে পারে না ।তাছাড়া বছরে মাত্র দুইটি ঈদের সময়ই তারা এত দীর্ঘ ছুটি পান।এজন্য শত ব্যস্ততাকে ফেলে নাড়ির টানে একটুকরো শান্তির খোঁজে পাড়ি জমান তাদের চিরচেনা নীড়ে।এবং পরিবার পরিজনের সাথে কাটায় সুন্দর মুহূর্তগুলো। কেমন সময় পার করছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা? ঈদ নিয়ে তাদের ভাবনাটাই বা কি? এসব বিষয় নিয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী তাদের ভাবনা তুলে ধরেছেন।

ঈদের আনন্দ লুকিয়ে আছে মায়ের হাতের রান্নায় 

ঈদ মানে ঘরে ফেরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যস্ত জীবনের মাঝে একটুখানি শান্তি হলো ঈদের ছুটি। বাসার খাবার, প্রিয়জনের সাথে সময় কাটানো, ঘুরতে যাওয়া, মুভি দেখা, ও ট্রাভেল ব্লগ দেখার মধ্য দিয়ে আমার এবারের ঈদ কাটছে। আর আমার প্রিয় সঙ্গী স্কেচ বুক তো থাকেই, মন চাইলে আঁকিবুঁকি ও চলে মাঝে মাঝে। তবে সব থেকে সুন্দর মুহুর্ত পরিবারের সবাই এক সাথে হওয়া ও মায়ের হাতে রান্না ।আপনাদেরও পরিবারের সাথে সুন্দর সময় কাটুক। কোরবানির পরে নিজের চারপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখি। ঈদ মোবারক।

মোঃ সাইফুল্লাহ আবীর
ড্রইং এন্ড পেইন্টিং ডিসিপ্লিন

 

টিউশনির টাকা জমিয়ে ঈদে পরিবারের জন্য কিছু কেনা প্রশান্তিদায়ক

সকল ব্যস্ততা শেষ করে ঈদের ছুটিতে পরিবারের কাছে ফিরে আসা স্বর্গীয় সুখের মতো। বাবা-মা, ভাই-বোন ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্য টিউশনের টাকা দিয়ে ঈদ উপহার নিয়ে যাওয়াতেও অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করে। পরিবারকে কাছে পাওয়া, তাদের ভালোবাসা, পুরোনো বন্ধুদের সাথে দেখা হওয়া, সবাই মিলে কোরবানি করা, একসাথে গোস্ত কাটা, আত্মীয় স্বজনের মাঝে গোস্ত বিলানো এসবের মাধ্যমেই শুরু হয় বাধ ভাঙ্গা উৎসব। সবার মাঝে এই আনন্দ ছড়িয়ে পড়ুক।

মুহিব্বুল্লাহ মুহিব
অর্থনীতি ডিসিপ্লিন

ঈদ ভ্রাতৃত্ব,ভালোবাসা ও সাম্যের কেন্দ্রস্থল

ঈদ মানে আমার কাছে আনন্দ, ভালোবাসা এবং বন্ধনের উৎসব। উচ্চশিক্ষার জন্য যখন থেকে নিজের‌ বাড়ি ছেড়েছি তখন থেকেই ঈদ এর অর্থেও কিছুটা বদলে গেছে আমার কাছে। এখন ঈদ আমার কাছে ধরা দেয় মিলনমেলার উৎস হিসেবে। যেই উৎসবে পরিবারের সকলকে এবং বন্ধু-বান্ধবদের একসাথে পাই আমি। উচ্চশিক্ষার জন্য দূরে যাওয়া ফলে আমি শিখেছি নিজের শিখরের টান কতটা গভীর, পারিবারিক বন্ধন কতটা গুরুত্বপূর্ণ । এই টানেই প্রতিবার ঈদের ছুটির আগে থেকেই আমি প্রহর গুণি শিকড়ের কাছে ফেরার। যখন মায়ের হাসি মুখটা দেখি বাড়ি ফিরে, যখন বাবার স্নেহের হাতটা মাথার উপরে পাই তখন থেকেই আমার ঈদ শুরু হয়‌। ঈদ মানেই এক আত্নীক প্রশান্তি। ঈদ মোবারক।

মোঃ ইশতিয়াক আহমেদ সাজিত
পরিসংখ্যান ডিসিপ্লিন

পরিবারের সাথে থাকতে পারাটায় আনন্দের 

হজরত ইব্রাহিম (আ:) আল্লাহর নির্দেশে প্রিয় পুত্রকে কোরবানি দিতে উদ্যত হন, কিন্তু আল্লাহর ইচ্ছায় তার পরিবর্তে একটি পশু কোরবানি হয়। এই ত্যাগের মহিমা অনুসরণে গোটা মুসলিম বিশ্ব ঈদুল আজহা পালন করে থাকে।কোরবানি ঈদে পশু কেনা, কোরবানি দেওয়া এবং মাংস বিলিবণ্টন করা হয় এগুলো করেই সময় পার করা হয়। ঈদের ছুটি এবং টার্ম ব্রেক এবার একসাথে পড়ায় সময়টা মুভি দেখা, বন্ধুদের সাথে আড্ডা, এবং বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে কাটছে। যেহেতু খুলনাতেই থাকি তাই পরিবারের সাথে প্রতিদিনের জীবন, ঘুরতে যাওয়া, এবং একসাথে সময় কাটানো অনেক আনন্দের। ঈদের আনন্দ পরিবার-পরিজন ও প্রতিবেশীদের সাথে ভাগাভাগি করে খুশি থাকা এবং নিজেকে খুশি রাখা এটাই প্রত্যাশা।ঈদ মোবারক।

মোঃ তাজুল হোসেন তাজ
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন

প্রকৃত ঈদ আনন্দ পাওয়া যায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। রোজার ঈদে বেশি ছুটি না পেলেও এবার কুরবানির ঈদে আমি অনেক ছুটি পেয়েছি। প্রায় ১ মাসের মতো।এখন আমার অবসর সময় কাটাচ্ছি বই পড়ে, মজার মজার রান্না করে। আমি যেহেতু রান্না করতে পছন্দ করি তাই নতুন নতুন রেসিপি ইউটিউব থেকে শিখছি এবং বাসার সবাইকে খাওয়াচ্ছি। আমি যেহেতু দাদু বাড়িতেই থাকি তাই এইখানেই আমি ঈদ পালন করি সবসময়।সবকিছুর মধ্যেও আমাদের আশপাশে কিছু মানুষ আছে, যাদের ঈদ আনন্দের থেকে বেদনা থাকে বেশি। যাদের সামর্থ্য নেই দুবেলা দুমুঠো ভাত জোগার করার। তাদের কাছে তো ঈদ আনন্দ বিলাসিতার মতো। তাই আমরা যারা সামর্থ্যবান রয়েছি তাদের উচিত যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানো। তাহলে প্রকৃত ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করা সম্ভব হবে।

তানিম মল্লিক
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন

ব্যস্ত জীবনে ঈদের ছুটি যেন একটুকরো প্রশান্তি

দীর্ঘ ক্লাস ও পরীক্ষার পরে টার্ম ব্রেক ইদুল আযহার ছুটি পেলাম একসাথে। চেষ্টা করছি ছুটিটার সম্পূর্ণটা সময়টা পরিবারের সাথে থেকে পরিবারকে দেওয়ার। ইদুল আযহা তে সবথেকে বেশী ব্যস্ততা থাকে কুরবানি নিয়ে। ঈদের দিন ঈদগাহ ময়দান থেকে ফিরেই কুরবানি করা হবে। তারপর কাটাকাটির পর মিসকিন, আত্মীয় এবং নিজের ভাগে ভাগ করে পৌছে দিতে হবে সবার ভাগ।

মো. সৌরভ হোসেন
পরিসংখ্যান ডিসিপ্লিন

জীবনে নতুন কিছু সংযোজন ঈদ আনন্দ কে দ্বিগুণ করে

ঈদ মানেই আনন্দ।স্থানীয় হওয়ায় পরিবারের সাথে ঈদ করার আনন্দ আমি বরাবরই পাই।নিজ পরিবারের পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার পর এখানেও আমার একটা নতুন পরিবার তৈরি হয়েছে কিন্তু টার্ম ব্রেক আর ঈদের ছুটি একসাথে পরার কারণে বন্ধুরা তাদের নিজ বাড়িতে চলে গিয়েছে এখানে একটু খারাপ লাগা কাজ করছে।ঈদের সময় এই বন্ধুগুলো সাথে থাকলে ঈদটা আরও ভালো কাটাতে পারতাম হয়তো।সারাবছর ক্লাস থেকে স্বস্তি পাওয়ার একটাই আনন্দ পাই ঈদের ছুটিতে।পরিবারের সাথে সময় দিতে পারি, আনন্দ করতে পারি।কিছু নতুন সংযোজনের কারণে এবারের ঈদটা আমার কাছে একটু বেশিই স্পেশাল।

শাম্মী আক্তার মিথি
সমাজবিজ্ঞান ডিসিপ্লিন




আরও সংবাদ

খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692

Don`t copy text!