খুলনা, বাংলাদেশ | ২ মাঘ, ১৪২৮ | ১৬ জানুয়ারি, ২০২২

Breaking News

  করোনার সংক্রমণ বাড়লেও এখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়নি : শিক্ষামন্ত্রী
  করোনার কারণে দুই সপ্তাহ পিছিয়ে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু অমর একুশে গ্রন্থমেলা

সমীকরণ বদলে দিল তাইজুল, পাকিস্তান অলআউট

ক্রীড়া প্রতিবেদক

যেটা আগের দিন হয় সেটা পরের দিন হয় না- চটগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে ম্যাচের পরিস্থিতি বোঝাতে এভাবেই বলছিলেন লিটন দাস। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনে এসে অনেকেই লিটনকে জ্যোতিষ ভাবতে পারেন। ভাববেন নাই বা কেন? সাগরিকার পাড়ে চলমান টেস্টে প্রথম দিনে দাপট দেখায় বাংলাদেশ দল, দ্বিতীয় দিনে বাজিমাত পাকিস্তানের। তৃতীয় দিনে আবার চালকের আসনে বসেছে বাংলাদেশ দল।

পাকিস্তানের বিপক্ষে চলমান টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৩৩০ রান করে টাইগাররা। পরে নিজেদের প্রথম ইনিংসে কোন উইকেট না হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৪৫ রান তুলে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করে সফরকারীরা। এমন পরিস্থিতিতে সবাই-ই যেন তাকিয়ে ছিলেন, কত রানের লিড জমা করে ইনিংস ঘোষণা করবে বাবর আজমের দল। অথচ তাইজুল ইসলাম সমীকরণ বদলে দিলেন। ৭ উইকেট নিয়ে উল্টো লিড পাইয়ে দিলেন বাংলাদেশ দলকে।

১৪৫ রানে তৃতীয় দিন শুরু করা পাকিস্তান দল সকালের সেশনে ৫৮ রান তুলতে হারায় ৪ উইকেট। যেখানে ৩ উইকেট নেন তাইজুল। দ্বিতীয় সেশনে ফিরেও বাজিমাত এই বাঁহাতি স্পিনারের। পাঁচ উইকেটের স্বাদ পাওয়ার পাশাপাশি ৭ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানকে আটকে দেন ২৮৬ রানে। এতে প্রথম ইনিংসে ৩৩০ রান করা বাংলাদেশ দল দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করবে ৪৪ রানের লিড হাতে নিয়ে।

ম্যাচের আগের দুদিন সকালের সেশন বাদ দিলে বাকি চার সেশনে কোন উইকেট পড়েনি দুই দলের। আজ এই সমীকরণের মুখে যেন ঝামা ঘসে দিলেন বাংলাদেশি বোলাররা। বাংলাদেশের থেকে ১২৭ রান পিছিয়ে অর্থাৎ দলীয় স্কোর ২০৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় সেশনের খেলা শুরু করেন আবিদ আলী (১২৭) ও মোহাম্মদ রিজওয়ান (৫)। তাদের সুবিধা করতে দেননি স্বাগতিকরা।

শুরুটা হয় রিজওয়ানকে দিয়ে। সেশনের তৃতীয় ওভারে সফরকারী শিবিরে আঘাত হানেন পেসার এবাদত হোসেন। অফ স্টাম্পে টানা আউট সু্ইং করা এবাদত হঠাৎ করেন ইনসুইং। রিজওয়ানের ব‍্যাট এড়িয়ে লাগে প‍্যাডে। আম্পায়ার এলবিডব্লিউ দিলে রিভিউ না নিয়ে সেই ৫ রানেই ফিরে যান বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে রানের ফোয়ারা ছোটানো রিজওয়ান। ভাঙে ৭৬ বল স্থায়ী ২৫ রানের জুটি।

এরপর ইনিংসের ৯৪ ও ৯৬তম ওভারে জোড়া আঘাত তাইজুলের। বাংলাদেশ দলের গলার কাটা বনে যাওয়া আবিদ আলী প্রথম সেশনে ক্যারিয়ারের চতুর্থ টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে স্বাগতিক শিবিরের ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়ান। ৮০তম ওভারের একবার জীবন পান। দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে আবিদের একটি ক্যাচ তালুবন্দি করতে পারেননি ইয়াসির আলী। এই ওপেনারের ব্যাটে যখন শঙ্কার মেঘ জমছিল, তখন ত্রাতার ভূমিকায় তাইজুল।

খুলনা গেজেট/ এস আই




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692