খুলনা, বাংলাদেশ | ২০ শ্রাবণ, ১৪২৮ | ৪ আগস্ট, ২০২১

Breaking News

  পরীমণিকে আটকের পর রাজ মাল্টিমিডিয়ার সত্বাধিকারী নজরুল ইসলাম রাজের বনানীর বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাব

পহেলা জুলাই থেকে বন্ধ হচ্ছে না অনিবন্ধিত মোবাইল ফোন

গে‌জেট ডেস্ক

৩০ জুন থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোন বন্ধের যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তাতে ব্যবহারকারীদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) জানিয়েছে, গ্রাহকরা যেসব ফোন কিনে ব্যবহার করছেন, সেগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নিবন্ধিত হয়ে যাবে।

বৈধ পথে আমদানি হয়নি বা দেশে উৎপাদন হয়নি, এমন যেসব সেট দোকানে আছে, সেগুলোও আর ব্যবহার করা যাবে না, এমন নয়। তবে ১ জুলাই থেকে এসব হ্যান্ডসেট যে মোবাইল অপারেটর নেটওয়ার্কে যুক্ত হবে, সেগুলো প্রাথমিকভাবে নেটওয়ার্কে সচল করে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (এনইআইআর) মাধ্যমে হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাই করা হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিটিআরসির উপপরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন খান।

বিটিআরসি দীর্ঘদিন ধরেই জানিয়ে আসছে যে, ৩০ জুনের পর থেকে অনিবন্ধিত মোবাইল ফোনসেট আর ব্যবহার করা যাবে না। এ নিয়ে গ্রাহক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে উদ্বেগ আছে। বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে মোবাইল ফোন সংযোজনে কারখানা স্থাপন হলেও আগে পুরোটাই ছিল আমদানিনির্ভর। তবে বৈধপথে কর দিয়ে আমদানির পাশাপাশি চোরাচালানের মাধ্যমেও কম ফোনসেট আসেনি দেশে। মূলত এসব ফোনই অবৈধ বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

কিন্তু গ্রাহকরা তুলনামূলক কম দামে পাওয়া যায় বলে ওয়ারেন্টি না থাকলেও এসব সেট কিনেছেন। যদি এর সবই বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে তারা বিপাকে পড়বেন কি না, এ নিয়ে আছে জিজ্ঞাসা। আবার বহু ব্যবসায়ী এসব ফোন কিনে তাদের দোকানে তুলেছেন। তারাও বিটিআরসির সিদ্ধান্ত নিয়ে উদ্বেগে আছেন।

তবে এক সপ্তাহ বাকি থাকতে মোবাইল ফোন অপারেটররা এসএমএস দিয়ে আশ্বস্ত করেছে যে, কোনো গ্রাহকের ফোনসেট বন্ধ হবে না। পরে বিটিআরসির কর্মকর্তাও বললেন একই কথা। বিটিআরসির উপপরিচালক জানান, ১ জুলাই থেকে কেনা হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এনইআইআরে নিবন্ধিত হয়ে নেটওয়ার্কে সচল থাকবে। আর যদি বৈধ না হয় সে ক্ষেত্রে গ্রাহককে এসএমএস দিয়ে বিষয়টি অবহিত করা হবে। ওই হ্যান্ডসেটটি পরীক্ষাকালীন তিন মাসের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। এরপর সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিটিআরসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আগামী ১ জুলাই থেকে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হচ্ছে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (এনইআইআর) কাজ। গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও সিম নম্বরের সঙ্গে ব্যবহার করা মোবাইল ফোনের আইএমইআই সম্পৃক্ত করে এই নিবন্ধন করা হবে।

সেট বৈধ কি না, যেভাবে যাচাই করবে গ্রাহক

জুলাই থেকে যেকোনো মাধ্যমে মোবাইল কেনার আগে সেটির বৈধতা যাচাই করে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে বিটিআরসি। বৈধতা যাচাইয়ের জন্য মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD<স্পেস>১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি মেসেজে মোবাইল হ্যান্ডসেটের বৈধতা সম্পর্কে জানতে পারবে গ্রাহক।

বিদেশ থেকে কেনা বা উপহার পাওয়া মোবাইল সেটগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আসতে হবে বলেও জানিয়েছে বিটিআরসি। নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হবার ১০ দিনের মধ্যে অনলাইনে তথ্য প্রমাণ দিয়ে নিবন্ধন করা যাবে। ১০ দিনের মধ্যে নিবন্ধন হলে হ্যান্ডসেটটি বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

পরীক্ষামূলক সময়ের তিন মাসের মধ্যে ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। একজন ব্যবহারকারী নিজ নামে নিবন্ধন করা যেকোনো সিম দিয়ে যেকোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবেন। পরীক্ষামূলক সময় পার হলে ডিরেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানানো হবে।

 

খুলনা গেজেট/এমএইচবি

আরও সংবাদ




খুলনা গেজেটের app পেতে ক্লিক করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

© 2020 khulnagazette all rights reserved

Developed By: Khulna IT, 01711903692